নিজস্ব প্রতিবেদক:

জাতীয় সংসদের ৩৫০ সংসদ সদস্যের (এমপি) মধ্যে প্রাণঘাতী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১০৯ জন, মারা গেছেন ৪ জন। মন্ত্রিসভার ১৫ জন সদস্য ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন, যার মধ্যে মারা গেছেন একজন। এ ছাড়া ৫০ সংরক্ষিত নারী এমপির মধ্যে ১২ জন সংক্রমিত হয়েছেন।

জাতীয় সংসদের একাধিক সূত্র জানায়, জাতীয় সংসদে প্রথম করোনা আক্রান্ত হন হুইপ শহীদুজ্জামান সরকার (নওগাঁ-২)। গত বছরের ৩০ এপ্রিল তিনি ভাইরাসটিতে আক্রান্ত্র হিসেবে শনাক্ত হন। ওই বছরের জুন নাগাদ তা বেড়ে দাঁড়ায় ১৬ জনে।

জুলাইয়ে ৬ জন, আগস্টে ১১ জন, সেপ্টেম্বর ও অক্টোবরে ৫ জন করে, নভেম্বরে ২২ জন, ডিসেম্বরে ৮ জন সাংসদ করোনায় আক্রান্ত হন।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে ৩ জন, ফেব্রুয়ারিতে ৬ জন, মার্চে ১৪ জন, এপ্রিলে এখন পর্যন্ত ১১ জন এমপি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এ তালিকায় সর্বশেষ যুক্ত হয়েছেন ওয়ার্কার্স পার্টির ফজলে হোসেন বাদশা (রাজশাহী-২)।

করোনা আক্রান্তদের মধ্যে প্রথম ডোজ টিকা নেয়া ব্যক্তির পাশাপাশি দ্বিতীয় ডোজ নেয়ারাও আছেন বলে জানা গেছে। তবে আক্রান্তদের অনেকেই সেরে উঠেছেন ও উঠছেন।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে যেসব সাংসদ মারা গেছেন তারা হলেন, সাবেক মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম (সিরাজগঞ্জ-১), সাবেক মন্ত্রী আবদুল মতিন খসরু (কুমিল্লা-৫), ইসরাফিল আলম (নওগাঁ-৬) ও মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী (সিলেট-৩)।

এ ছাড়াও সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ আবদুল্লাহ করোনায় মারা গেছেন। সরকারি দল আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়ামের ২ জন সদস্য মারা গেছেন করোনায়, সম্পাদকমণ্ডলীসহ আক্রান্ত হয়েছেন এক ডজনেরও বেশি।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৮ মার্চ দেশে করোনার রোগী প্রথম শনাক্ত হয়, ভাইরাসটিতে প্রথম মৃত্যু ঘটে ১৮ মার্চ। সেই থেকে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ২৭ হাজার ৭৮০ জনে, মৃত্যু ১০ হাজার ৫৮৮।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *