নিজস্ব প্রতিবেদক,বগুড়া:

হাতে পিস্তল, মাথায় টুপি, মুখে মাস্ক এমপি মহদয় ছবি দিয়েছেন ফেসবুকে, আর তার নির্বাচনি এলাকার বাসিন্ধারা বিপুল উৎসাহ নিয়ে এ ছবিটি শেয়ার করেছেন, অনেকে আবার নানা রকম উক্তিও ছুঁড়েছেন ফেসবুকের পাতায়। সব মিলিয়ে এখন সমালোচনার ঝড় বগুড়া-৭ (গাবতলী-শাজাহানপুর) আসনের  সাংসদ রেজাউল করিম বাবলুকে নিয়ে।

আজ শুক্রবার ৯(অক্টোবর) এমপি বাবুলের এমন একটি ছবি ফেসবুকে তিনি নিজেই পোষ্ট করে আবার সরিয়ে নিয়েছেন। এর মাঝে অনেকে উৎসাহিত হয়ে ছবিটি ফেসবুকে ভাইরাল করেছেন।

আবার অনেক সচেতন নাগরিক এর কড়া সমালোচনাও করেছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

এ ঘটনার সমালোচনা করে বগুড়ার জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক চপল সাহা ফেসবুকে লিখেছেন, ‘একজন সংসদ সদস্যের কেনা অস্ত্র প্রদর্শন কতটা শোভনীয়? ২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত একাদশ সংসদ নির্বাচনে বগুড়া ৭ আসনে বিএনপির প্রার্থী না থাকায় হঠাৎ করেই রেজাউল করিম বাবলুকে সমর্থন দেয়া হয়।

ফলে তিনি হয়ে যান সংসদ সদস্য। তিনি একটি অস্ত্র কিনেছেন তার নিজের সুরক্ষার জন্য। এই অস্ত্রটি তিনি ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন। একজন সংসদ সদস্যর জানা উচিত অস্ত্র প্রদর্শন করা আইনত অপরাধ। তাহলে তিনি কী…?

‘আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স প্রদান, নবায়ন ও ব্যবহার নীতিমালা ২০১৬’-এর বিধান উল্লেখ করে এমপি বাবলুর অস্ত্রহাতে ছবি পোস্টের সমালোচনা করেছেন আরেক সাংবাদিক রবিউল ইসলাম। এই নীতিমালার অনুচ্ছেদ ২৫ (গ) ও ২৫ (ক) অনুযায়ী লাইসেন্স থাকা অস্ত্রও প্রদর্শন না করার বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা রয়েছে।

এ দিকে সংসদ সদস্য বাবলু গনমাধ্যমকে বলেন, ‘ছড়িয়ে পড়া ছবিটি অস্ত্র কেনার সময়ে তোলা। তবে তখন আমি অস্ত্রটি কিনতে পারি নাই।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *