টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:

টাঙ্গাইলের ভুঞাপুরে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামী ও শ্বশুরের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাদের এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার দুপুরে টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমিন এই রায় দেন।

দণ্ডিতরা হলেন-ভুঞাপুর উপজেলার অর্জুনা গ্রামের জহিরুল ইসলাম (২৫) ও তার বাবা মজনু মিয়া (৫৫)।

টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পিপি নাসিমুল আক্তার নাসিম জানান, জহিরুল ইসলামের সঙ্গে একই উপজেলার কুঠিবয়রা গ্রামের সলিম উদ্দিনের মেয়ে তাসলিমা আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের টাকা দাবি করে তাসলিমার উপর নির্যাতন করতেন শ্বশুর বাড়ির লোকজন। ২০১৬ সালের ২৭ নভেম্বর যৌতুকের দেড় লাখ টাকা দাবি করে তাসলিমাকে হত্যা করে মরদেহ যমুনা নদীতে ভাসিয়ে দেওয়া হয়। তিনদিন পর ভুঞাপুরের গোবিন্দাসী ঘাট থেকে তাসলিমার ভাসমান মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে তার বাবা বাদী হয়ে ১ ডিসেম্বর মামলা করেন।

তিনি জানান, পুলিশ নিহতের স্বামী জহিরুল ইসলাম ও শ্বশুর মজনু মিয়াকে গ্রেপ্তার করে। তারা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরবর্তীতে তারা জামিনে মুক্ত হন। রোববার তাদের আদালতে হাজির থাকার কথা থাকলেও তারা উপস্থিত হননি। তাদের অনুপস্থিতিতেই আদালত রায় দেন।

বাদীপক্ষের আইনজীবী ছিলেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পিপি নাসিমুল আক্তার নাসিম। আসামীপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট খন্দকার ফায়েকুজ্জামান নাজিব।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *