সিএনএস ডেস্ক:


এক মাস সিয়াম সাধনার পর মুসলমানদের মহাআনন্দের দিন। বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস শুরু হওয়ার পর স্থানীয় গতবছর মসজিদগুলোতে ঈদ জামাতের অনুমতি না দিলেও এইবার মসজিদগুলোতে সীমিত পরিসরে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মুসলমানদের দুই পবিত্র নগরী মক্কার কাবা শরীফ এবং পবিত্র মদিনার মসজিদে নববীতে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে ঈদ উপলক্ষে এই দুটি পবিত্রতম স্থান এ নেওয়া হয়েছে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

এই দুটি মসজিদে ঈদ জামাতে অংশগ্রহণের জন্য বিশেষায়িত অ্যাপস ‘এতেমারনার’ মাধ্যমে অনুমতি নিতে হয়েছে মুসল্লিদের। অনুমতি ছাড়া কাবা শরীফ এবং মদিনা মসজিদে নববীর আশেপাশে কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করেন সৌদি সরকার।

স্থানীয় সৌদি নাগরিক প্রবাসী বাংলাদেশি সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রবাসীদের অংশগ্রহণে ঈদের জামাতে বহির্বিশ্বে নিগৃহীত মুসলমানদের জন্য বিশেষ করে মসজিদ আল আকসাসহ ফিলিস্তিনের নাগরিকদের জন্য বিশেষ দোয়া করা হয় এছাড়া বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের থেকে সমগ্র মানবজাতিকে মুক্তির জন্য দোয়া করা হয় ঈদের এই জামাতে।

সৌদি আরবে ঈদ জামাতের আলাদা কোন মাঠ নেই তবে মসজিদে মসজিদে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় অনেক সময় মসজিদের ভিতরে জায়গা সংকুলান না হওয়ায় সামিয়ানা বিছিয়ে নামাজের ব্যবস্থা করেন কর্তৃপক্ষ।

পবিত্র কাবা শরীফ ঈদের জামাতের ইমামতি করেন ওস্তাদ শেখ শাইখ সালেহ আল হুমাইদ। এবং মসজিদে নববীতে ঈদের জামাতের ইমামতি করেন শায়েক আহ্মেদ সালিম আল হামেদ।

গতবছর ঈদুল ফিতরের সৌদি সরকারের লকডাউন কারফিউ জারি থাকায় আনন্দঘন পরিবেশে প্রবাসী বাংলাদেশিরা ঈদ উদযাপন করতে না পারলেও এবার স্বাস্থ্যবিধি মেনে আনন্দঘন ঈদ উদযাপন করছেন তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *