অনলাইন ডেস্ক:
বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটার বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের মেয়েকে নিয়ে ফেসবুকে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্যকারীদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনতে কাজ করছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)।

ডিএমপির কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগ শুক্রবার এ কথা জানিয়েছে।

এর আগে সূর্যমুখী খেতের মাঝ দিয়ে চলে যাওয়া মেঠোপথে হাস্যোজ্জ্বল সাকিবকন্যার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। ক্রিকেটার সাকিবের পেজে পোস্ট করা ওই ছবি ঘিরে কয়েকজন চরম আপত্তিকর মন্তব্য করেন। পরে সাকিব ও তার স্ত্রী উম্মে আহমেদ শিশিরের পেজ থেকে ছবিটি সরিয়ে ফেলা হয়।

সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগের উপ-কমিশনার আ ফ ম আল কিবরিয়া গনমাধ্যমকে বলেন, বিষয়টি পুলিশের নজরে এসেছে। এরইমধ্যে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করা সাত-আটটি আইডি শনাক্ত হয়েছে। এখন সেই আইডির নেপথ্যের ব্যক্তিদের পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে। দেখা যাচ্ছে, কোনো আইডি ভুয়া নাম-পরিচয়ে খোলা হয়েছে। আবার কোনোটি এরইমধ্যে ডিঅ্যাকটিভ করা হয়েছে। তবে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। আর সেই অপরাধীদের পার পাওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে শুক্রবার সন্ধ্যায় দেওয়া এক পোস্টে বলা হয়, ‌‘বাংলাদেশের গর্ব সাকিব আল হাসানের পরিবারের শিশু সদস্যকে নিয়ে কিছু বিকৃত মানসিকতার লোক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সম্প্রতি কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করছেন, যা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে এবং অপরাধীদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শিষ্টাচার বজায় রাখার জন্য সবাইকে অনুরোধ করা হচ্ছে।’

সংশ্নিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, পুলিশ নিজের উদ্যোগেই এ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। সাকিব বা তার পক্ষে কেউ কোনো আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিল করেননি। এ বিষয়ে সাকিবের সঙ্গে যোগাযোগও করেনি পুলিশ।

ফেসবুকের বিভিন্ন পোস্টে দেখা যায়, শাহিন আলম, ড্রিমলেস কিং রেজোয়ান, আবরার শাহরিয়ার, শাহ মো. আবদুল্লাহ, নিউটন তরফদার ও বিনিয়াস হাসদা নামের কয়েকটি অ্যাকাউন্ট থেকে ওইসব বাজে মন্তব্য করা হয় বলে সাকিবভক্তরা চিহ্নিত করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *