বাসস:

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে দিনব্যাপী আয়োজিত “ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০২০” আজ শষ হয়েছে।

তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সবচেয়ে বড় প্রদর্শনী ভৌত অবকাঠামোর পাশাপাশি প্রথমবারের মতো প্রযুক্তিক মাধ্যমকে গুরুত্ব দিয়ে আয়োজিত এই মেলায় এবার এক কোটির বেশি দর্শনার্থীর সমাগম হয়েছে ।

রাজধানীর আগারগাঁওস্থ ফিল্ম অ্যান্ড আর্কাইভ মিলনায়তনে বর্ণাঢ্য সমাপনী আয়োজনে ভিডিও কনফারেন্সিং -এর মাধ্যমে প্রধান অতিথি হিসেবে যুক্ত হন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

সালমান এফ রহমান বলেন, গার্মেন্টস শিল্প বাংলাদেশের বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে যে অবস্থানে নিয়ে যেতে চান তা সম্ভব হবে আইসিটির কল্যাণে, ডিজিটাল বাংলাদেশের মাধ্যমে।
তিনি বলেন, ‘‘এই ডিজিটাল মেলা বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণকে প্রমান করে। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, ‘আমাদের দাবায়া রাখতে পারবা না”।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ডিজিটাল বাংলাদেশের যে স্বপ্ন দেখছেন সেটি বাস্তবায়নে নেতৃত্ব দিয়েছেন তার উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। তবে এটিকে বাস্তবায়ন করেছে বাংলাদেশের ছেলেমেয়েরা।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, এবারের আয়োজনের আমরা আগের তুলনায় ১০ ভাগের ১ ভাগ খরচ করে কাংখিত লক্ষ্যমাত্রার ১০ গুণ মানুষের কাছে পৌঁছাতে পেরেছি। আমাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১০ লাখ দর্শনার্থীর কাছে পৌঁছানো। কিন্তু আমরা এক কোটির বেশি দর্শক, দর্শনার্থীর কাছে পৌঁছাতে পেরেছি।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মাঝে আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক পার্থ প্রতিম দেব, বেসিসের সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর বক্তব্য রাখেন।

ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০২০ উপলক্ষ্যে দেশের আইসিটি খাতে অবদান রাখার জন্য ১৩টি ক্যাটাগরিতে ১৭টি ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে জাতীয় আইসিটি অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *