কুড়িগ্রাম,প্রতিনিধি:

অভাবী সংসারের ছেলে। তার পরও বায়না ধরে এক সপ্তাহ আগে মা-বাবার কাছ থেকে ভুট্টা বিক্রির ১০ হাজার টাকা নিয়ে মোবাইল কেনেন মেহেদী হাসান স্বপন (১৮)। এর পর স্থানীয় ছেলেদের দেখাদেখি তিনিও লাইকি ভিডিও বানাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন।

ছোট ছোট ছেলেকে নিয়ে বিভিন্ন রকমের বিনোদনমূলক ভিডিও বানিয়ে লাইকি অ্যাপসে আপলোড করেন। আর সেই ভিডিও বানাতে গিয়েই মুখ ঝলসে গেছে ওই শিক্ষার্থীর। মেহেদী কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার ছিনাই ইউনিয়নের মহিধরখ- ক্ষেত্র গ্রামের আমিনুর রহমানের ছেলে।

জানা গেছে, গত রবিবার সকাল ৮টার দিকে চাচাতো ভাইদের নিয়ে বাড়ির পাশে ফাঁকা জমিতে ভিডিও বানাতে যান মেহেদী। মুখে পেট্রোল নিয়ে মুখ থেকে আগুন বের করার ভিডিও বানাতে চেয়েছিলেন তিনি। আর সেই আগুন মেহেদীর পুরো মুখে লেগে ঝলসে যায়। চাচাতো ভাইদের চিৎকারে বাড়ির লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়। চিকিৎসক জানিয়েছেন তার মুখের প্রায় ৯০ শতাংশ ঝলসে গেছে।

মেহেদীর মা ফাতেমা বেগম বলেন, ছেলের চাপ সামলাতে না পেরে মোবাইল কেনার জন্য এক সপ্তাহ আগে ১০ হাজার টাকা দিই। আর আজ ওর এই অবস্থা। এখন চিকিৎসা করার মতো টাকাও নেই। বাড়িতেই গ্রাম্য ডাক্তার দিয়ে চিকিৎসা করাচ্ছি।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *