আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

মহাকাশে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলা চীনা রকেটের ধ্বংসাবশেষ রোববার প্রথম প্রহরের পর পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে প্রবেশ করবে বলে ধারণা করছে যুক্তরাষ্ট্রের স্পেস-ফোকাসড রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টার।

যুক্তরাষ্ট্রের অ‌্যারোস্পেস কর্পোরেশন থেকে এক টুইট বার্তায় বলা হয়, সর্বশেষ অনুমান অনুযায়ী রোববার জিএমটি ০৪:১৯ মিনিটের আট ঘণ্টা আগে বা আট ঘণ্টা পরে রকেটটির ধ্বংসাবশেষ পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে প্রবেশ করবে।

তাদের অনুমানের সম্ভাব্য অঞ্চল হিসেবে নিউজিল্যান্ডের নর্থ আইল্যান্ডের আশেপাশে এটি পুনঃপ্রবেশ করতে পারে। সেই সাথে ধারণা করা হয় যে, পৃথিবীতে প্রবেশ পথের যেকোনো জায়গায় ধ্বংসাবশেষটি আছড়ে পড়তে পারে।

গত ২৯ এপ্রিল ‘লং মার্চ ৫বি’ নামের রকেট চীনের হাইনান দ্বীপ থেকে তিয়ানহে মডিউল নিয়ে পৃথিবীর কক্ষপথের উদ্দেশে রওনা হয়ে নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়ে।

মহাকাশ স্টেশন স্থাপনের জন্য কক্ষপথে মোট ১১টি মিশন পরিচালনা করবে চীন। এর প্রথমটিতেই ‘লং মার্চ ৫বি’ রকেটে করে তিয়ানহে মডিউল কক্ষপথে পাঠানো হয়। কিন্তু সেটি নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়ে।

রকেটটির ধ্বংসাবশেষ বিপদজনকের আশঙ্কা করা হচ্ছে। সেই সাথে চীনের সমালোচনা করছেন অনেকে।

তবে চীন বলছে, রকেটের ধ্বংসাবশেষ পৃথিবীর জন্য কোনো রকম বিপদজনক হয়ে উঠবে না।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে প্রবেশের পরপরই রকেটের ধ্বংসাবশেষ পুড়ে যাবে। তাই সেটির কারণে কোনো ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা নেই বললেই চলে।

রকেটটির ওজন ২১ টন। এটি এখন পর্যন্ত পৃথিবীতে ধসে পড়তে যাওয়া সবচেয়ে বেশি ওজনের ধ্বংসাবশেষ হতে যাচ্ছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *