আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

করোনা মহামারিতে বিপর্যস্ত ভারতের রাজধানী দিল্লি এখন অনেকটাই মৃত্যুপুরী। শহরের বিভিন্ন শ্মশানে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মৃতদেহের দীর্ঘ লাইন। সৎকার করতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হচ্ছে। অনেক সময় শ্মশানের দরজায় দরজায় ঘুরে জায়গা না পেয়ে শুধুমাত্র বরফ চাপা দিয়ে বাড়িতে মৃতদেহ রেখে দিচ্ছেন অনেকে।

ভারতীয় গণমাধ্যম দ্যা হিন্দুর খবরে বলা হয়, তবে এসব ঘটনাকে ছাপিয়ে গেছে দিল্লির রাস্তায় পড়ে থাকা মরদেহ কুকুর ছিঁড়ে খাচ্ছে এমন একটি মর্মান্তিক দৃশ্যের ছবি। শ্মশানে সৎকারের অপেক্ষায় রাস্তায় লাইনে থাকা একটি মৃতদেহ ছিঁড়ে খাচ্ছে কুকুর। গত রোববার ঘটনাটি ঘটেছে দিল্লির গাজিয়াবাদের হিন্দোন শ্মশান ঘাটের সামনে।

খবরে বলা হয় মৃত ওই ব্যক্তি দিল্লির গাজিয়াবাদ জেলার জজ আদালতে চাকরি করতেন। গত বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) তিনি করোনায় আক্রান্ত হন। পরে শ্বাসকষ্ট শুরু হলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। একপর্যায়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ৫১ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি।

তার এক সহকর্মী জানান, বৃহস্পতিবার করোনা শনাক্ত হওয়ার পর তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে শনিবার সন্ধ্যায় মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়। কিন্তু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই দিন গভীর রাতে তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হন এবং রাত একটার দিকে মরা যান। পরে পিপিই কিট পরিয়ে মৃতদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে হাসপাতাল।

পরদিন সকাল ৮টার দিকে মৃতদেহ সৎকারের জন্য গাজিয়াবাদের হিন্দোন শ্মশানে নেওয়া হয়। কিন্তু বিপুল সংখ্যক মানুষের মৃত্যুর কারণে তখন শ্মশানের সামনে অনেক লম্বা লাইন। বাধ্য হয়েই অন্য মৃতদেহ লাইনে রাখা হয়। সেখানেই একটি কুকুর তার মরদেহ ছিঁড়ে খাওয়া শুরু করে। তীব্র গরমের কারণে ওই ব্যক্তির পরিবারের সদস্যরা পাশেই একটি ছাউনির নিচে থাকলেও বিষয়টি তারা খেয়াল করেননি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *