আন্তর্জাতিক ডেস্ক:


রাশিয়ার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী বন্ধুক হামলা চালিয়েছেন। এতে আটজন মারা গেছেন। এই ঘটনায় অনেকেই আহত হয়েছেন।

সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) রয়টার্স জানিয়েছে, রাজধানী মস্কো থেকে ১ হাজার ৩০০ কিলোমিটার দূরে পের্ম স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ে হত্যাযজ্ঞ চালিয়ে হামলাকারী নিজেই নিজেকে গুলি করেন। পরে তার মৃতদেহ উদ্ধার করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

গণমাধ্যমে প্রকাশ হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, আতঙ্কিত শিক্ষার্থীরা একটি ভবনের দোতলা থেকে নিচে ঝাঁপ দিচ্ছে।

অপর এক ভিডিওতে অভিযুক্ত বন্দুকধারীকে বিশ্ববিদ্যালয় ভবনে প্রবেশের আগে এলোপাথাড়ি গুলি ছুড়তে দেখা যায়।

‘ক্লাসে ৬০ জনের মতো শিক্ষার্থী ছিলাম। হামলাকারী যাতে প্রবেশ করতে না পারে সে জন্য চেয়ার দিয়ে ব্যারিকেড দেই আমরা।’ সেমিয়ন কারাকিন নামের এক ছাত্র এসব কথা বলেন।

এদিকে হামলাকারীর নামও প্রকাশ করেছে স্থানীয় গণমাধ্যম। তিমুর বেকমানসুরভ নামের এই তরুণ বিশ্ববিদ্যালয়েরই শিক্ষার্থী।

হামলার আগে ১৮ বছর বয়সী তিমুর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বন্দুক সহ একটি পোস্ট দেন। শুটিং করার লাইসেন্সও রয়েছে তার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *