নিজস্ব প্রতিবেদক :

রাজধানীর কদমতলীর মুরাদপুর এলাকার একটি বাড়ির ভেতর থেকে একই পরিবারের তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার সকালে মরদেহগুলো উদ্ধার করা হয়।

গণমাধ্যমকে এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন কদমতলী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবুল কালাম আজাদ। তিনি বলেন, মুরাদপুর এলাকায় হামিদা পাম্পের পাশের গলির একটি বাড়ি থেকে তিনটি মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের প্রত্যেকের হাত-পা বাঁধা ছিল। এ সময় সঙ্কটাপন্ন অবস্থায় আরেকজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

তবে কি কারণে এবং কিভাবে তাদের হত্যা করা হয়েছে সে সম্পর্কে কিছু জানাতে পারেনি এসআই আবুল কালাম আজাদ। তিনি বলেন, ঘটনাস্থলে কাজ করছে পুলিশ। তদন্ত সাপেক্ষে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

মৃতরা হলেন- মাসুদ রানা (৫০), তার স্ত্রী মৌসুমী আক্তার (৪৫) এবং তাদের মেয়ে জান্নাতুল (২০)।

কদমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জামাল উদ্দিন বলেন, হত্যায় জড়িত সন্দেহে মাসুদ রানার বড় মেয়ে মেহেজাবিনকে আটক করা হয়েছে।

ওসি বলেন, আজ সকালে মেহেজাবিন নিজেই ৯৯৯ এ ফোন করে জানান, তার পরিবারের সদস্যরা গুরুতর অসুস্থ। এরপর ঘটনাস্থলে গিয়ে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

অভিযুক্ত মেহেজাবিনের স্বামী শফিকুল ইসলাম ও তিন বছরের সন্তানকেও অসুস্থ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *