মশিউর রহমান,কুড়িগ্রাম:

বাল্যবিয়ে বন্ধে যার প্রদক্ষেপ নেয়ার কথা সেই ইউপি চেয়ারম্যান নিজেই বাল্যবিয়ের বর হয়েছেন। তাও আবার চতূর্থ বিয়ে হিসেবে।স্থানীয়রা বলছেন ‘রক্ষক যখন ভক্ষক’ হয় তখন এমনি ঘটে।

কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার বুড়াবুড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু তালেব সরকার (৪৯) এক প্রতিবন্ধী দরিদ্র পিতার অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে তার কিশোরী (১৪) মেয়েকে ফুঁসলিয়ে বিয়ে করেছেন।

গতকাল রোববার রাতে ওই কিশোরীকে বিয়ে করেন বুড়াবুড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু তালেব। ইউনিয়নের যে গ্রামে বিয়ের ঘটনাটি ঘটেছে, সেখানকার এলাকাবাসী জানান, কিশোরীটির বাবা একজন প্রতিবন্ধী। কিশোরী স্থানীয় একটি স্কুলে পড়াশোনা করে। ক্লাসে যাতায়াতের সময় কিশোরীকে দেখেন চেয়ারম্যান আবু তালেব। এরপর নানাভাবে ওই ছাত্রীকে ফুঁসলিয়ে  বিয়েতে প্রলুব্দ করেন।

কিশোরীটির স্কুলের প্রধান শিক্ষক মেহেরুজ্জামান জানান, চেয়ারম্যান সমাজের দায়িত্বশীল ব্যক্তি হয়ে এমন কাজ করে সমাজকে কলুষিত করেছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *