গাজীপুর প্রতিনিধি:

গাজীপুরের শ্রীপুরে অসুস্থ এক নারী পোশাক শ্রমিককে (২১) রক্ত পরীক্ষার কথা বলে ক্লিনিকে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এঘটনায় ভিকটিম নিজে থানায় তিনজনের নামে মামলা করেছেন। অভিযুক্ত চিকিৎসকের নাম নুরুল ইসলাম শেখ। মামলার পরে অভিযুক্ত চিকিৎসক নুরুল ইসলাম শেখকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

তিনি গাজীপুরের রাজেন্দ্রপুর সেনানিবাস সংলগ্ন বাংলাদেশ নরওয়ে ফ্রেন্ডশীপ হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও চিকিৎসক।

মামলার বিবরণ থেকে জানা গেছে, গত ২০ সেপ্টেম্বর সকালে ওই নারী সর্দি-জ্বর নিয়ে অভিযুক্তের মালিকানাধীন বাংলাদেশ নরওয়ে ফ্রেন্ডশীপ হাসপাতালের ক্লিনিকে চিকিৎসা করাতে যান। এসময় অভিযুক্ত ওই নারীকে রক্ত ও প্রশ্রাব পরীক্ষা করার পরামর্শ দেন। পরে কোনো প্রকার কাগজপত্র না দিয়ে পরদিন রিপোর্ট নিয়ে যেতে বলেন।

আগের নমুনা নষ্ট হয়ে গেছে উল্লেখ করে পরদিন নুরুল ইসলাম শেখ ওই নারীকে ফের নমুনা দেয়ার জন্য হাসপাতালে যেতে লোক মাধ্যমে খবর পাঠান। চিকিৎসকের কথা মতো ওই নারী ২১ সেপ্টেম্বর দুপুরে হাসপাতালের উদ্দেশ্যে রওনা হন।

পথিমধ্যে ধলাদিয়া এলাকার রাজেন্দ্রপুর-কাপাসিয়া সড়কের পাশে চিকিৎসক নুরুল ইসলাম শেখ ও তার দুই সহযোগীকে গাড়ি নিয়ে দাড়িয়ে থাকতে দেখেন। এসময় নুরুল ইসলাম শেখ ওই নারীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে গাড়িতে তুলে নিয়ে একটি নির্জন বাঙলোতে নিয়ে যান। সেখানে নিয়ে নানা রকম ভয়ভীতি দেখিয়ে ওই নারীকে ধর্ষণ করে নুরুল ইসলাম শেখ।

ভুক্তভোগী নারীর বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশাল উপজেলায়। তিনি শ্রীপুরের ধলাদিয়া এলাকায় ভাড়া থেকে স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় চাকুরী করেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *