গাজীপুর প্রতিনিধি:
গাজীপুরে রোববার শ্রীপুর উপজেলা প্রশাসনের প্রধান ফটকে ফেস্টুন লিখে এক মা তার কিশোরী মেয়েকে ধর্ষণ ও নির্যাতনের বিচার চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

গত ১১ অক্টোবর মেয়েকে ধর্ষণ ও নির্যাতনের অভিযোগে রোববার শ্রীপুর থানায় মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী কিশোরীর মা।

ধর্ষণে অভিযুক্তরা হল-রফিকুল ইসলাম (৫০), আশু এবং আশুর ছেলে জোবাইল।তারা সবাই কিশোরীটির প্রতিবেশী।

মামলার সূত্রে থেকে জানা যায়, গত ১০ অক্টোবর ওই কিশোরীর মা ব্যক্তিগত কাজে ঢাকা যান। ওইদিন তিনি ঢাকা থেকে ফিরতে পারেননি। এ সুযোগে পরদিন ১১ অক্টোবর সকালে প্রতিবেশী অভিযুক্ত রফিকুল ইসলাম, আশু এবং জোবাইল কিশোরী মেয়েকে রফিকুল ইসলামের ঘরে নিয়ে তার শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে স্পর্শ করে ও ধর্ষণ চেষ্টা করে। এসময় মেয়ের ডাক চিৎকার করলে এ বিষয়ে কাউকে কিছু না বলার জন্য হুমকি দিয়ে চলে যায়।

পরে ওই দিনই সন্ধ্যায় একই কায়দায় কিশোরীকে জোরপূর্বক একই ঘরে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টা করে। এসময় সে ডাক চিৎকার করলে বাড়ির পাশের জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ ব্যাপারে কারো কাছে কিছু বললে ভয়-ভীতি দেখিয়ে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। পরে কিশোরী তার এক নিকট আত্নীয়কে ধর্ষণের ঘটনা জানায়।

১৮ অক্টোবর কিশোরীর মা ঢাকা থেকে ফিরে ঘটনা জানতে পেরে রোববার (৮ অক্টোবর) শ্রীপুর উপজেলা প্রশাসনের প্রধান ফটকের সামনে অবস্থান নিয়ে বিচার চান তিনি। খবর পেয়ে পুলিশ নির্যাতিত কিশোরীর মাকে থানায় এনে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা নথিভুক্ত করে।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খোন্দকার ইমাম হোসেন জানান, নির্যাতিতা ওই কিশোরীর মায়ের দেয়া অভিযোগের ভিত্তিতে একটি মামলা রজু হয়েছে। পুলিশ আসামীদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রখেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *