সিএনএস, ডেস্ক:
ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ভিডিও বার্তায় ও কানাডিয়ান প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো লিখিত বার্তায় এই শুভেচ্ছা জানান। দুজনই তাদের শুভেচ্ছা বার্তায় বর্তমান করোনা পরিস্থিতির উল্লেখ করেন।
সলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও কানাডিয়ান প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো।

বরিস ভিডিও বার্তায় এবং ট্রুডো লিখিত বার্তায় এই শুভেচ্ছা জানান। দুজনই তাদের শুভেচ্ছা বার্তায় বর্তমান করোনা পরিস্থিতির উল্লেখ করেন।

ফেসবুকে পোস্ট করা ভিডিও বার্তায় বরিস জনসন বলেন, ‘বিগত কয়েকটি মাস কারও জন্যই সহজ কাটছে না। তবে এরই মধ্যে ব্রিটিশ মুসলমান, আপনাদের রমজান দেখতে হলো- যেটি সাধারণত সামাজিকভাবে একসঙ্গে কাটানোর কথা, সে সময় কেটেছে লকডাউনে। তারপর অনেকেই হজে যেতে চেয়েছিলেন, সেই আশা ধূলিসাৎ করে দিয়েছে ভাইরাসটির কারণে আরোপ করা কঠোর বিধি-নিষেধ।’
ওই বার্তায় তিনি করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নিজেদের উৎসর্গ করা সবাইকে ধন্যবাদ জানান। উল্লেখ করেন, ওই যোদ্ধাদের মধ্যে মুসলমানরাও রয়েছে।

তিনি ধর্মীয় মূল্যবোধ ও ত্যাগের মহিমায় ঈদ উদযাপনের জন্য মুসলমানদের আহ্বান জানান। একইসঙ্গে সামাজিক দূরত্বসহ করোনাকালীন অন্যান্য নিয়ম মানারও আহ্বান জানান বরিস জনসন।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ঈদের নামাজ পড়াসহ বিভিন্নভাবে এই ঈদুল আজহাও নিশ্চিতভাবেই ভিন্ন রকম হবে; তবে আমি আন্তরিকভাবে আশা করব, আপনার উৎসব উপভোগ এবং খুবই ভালো কিছু খানাদানা করবেন। যুক্তরাজ্যে ও পৃথিবীর সর্বত্র থাকা মুসলমানদের আমি ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানাচ্ছি: ঈদ মুবারক।’

অন্যদিকে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো সানিজের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে ঈদের একটি ভিডিও পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখেন, ‘কানাডা ও পৃথিবীর নানা প্রান্তের মুসলমানরা ঈদুল আজহা উদযাপন করছেন। পরিবার ও প্রিয়জনদের সঙ্গে প্রার্থনা করার, খাবার ভাগাভাগির এবং পরস্পরকে শুভ কামনা জানানোর জন্য এ এক অনভ্যস্ত সময়। এ বছর আমরা যেহেতু কোভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে লড়ে যাচ্ছি, তার মুসলমান পরিবারগুলোকে (ঈদ উদযাপন) ভিন্নভাবে করতে হচ্ছে।’

তিনি সবাইকে ‘ঈদ মুবারক’ জানিয়ে ওই বার্তা শেষ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *