নিজস্ব প্রতিবেদক:
স্বাস্থ্যসচিব মো. আবদুল মান্নান বলেছেন, আমাদের যে নিয়ম আছে তাতে কোনো দুর্নীতিবাজের ছাড় পাওয়ার সুযোগ নেই। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গাড়িচালক আব্দুল মালেকের মতো আরো যারা আছে, তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থার প্রক্রিয়া চলছে।

সোমবার সচিবালয়ে সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রসঙ্গত, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গাড়িচালক মালেককে রোববার অস্ত্র ও জাল টাকাসহ গ্রেপ্তারের পর তার শত কোটি টাকার সম্পদের খোঁজ পাওয়ার কথা জানায় র‌্যাব।

সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্যসচিব বলেন, আমরা বলব দুর্নীতি করে পার পাওয়ার কোনো সুযোগ নাই। আমরা কাউকে ছাড়তে চাচ্ছি না। যাদের বিরুদ্ধেই কথা হয়েছে তাদের বিরুদ্ধেই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

৬৩ বছর বয়সী মালেক স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের মহাপরিচালকের (ডিজি) গাড়ি চালাতেন। করোনাভাইরাস মহামারীকালে স্বাস্থ্য খাতের নানা দুর্নীতি প্রকাশ পাওয়ার পর সমালোচনার মুখে ডা. আবুল কালাম আজাদ পদত্যাগ করলে অধিদপ্তরের পরিবহন পুলে সংযুক্ত ছিলেন তিনি।

৩৮ বছরের চাকরি জীবনে ৩৪ বছর ধরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিভিন্ন কর্মকর্তার গাড়ি চালিয়েছেন মালেক।

র‌্যাব কর্মকর্তারা বলছেন, তুরাগের দক্ষিণ কামারপাড়ায় ২টি সাততলা ভবন, একই এলাকায় একটি বিশাল ডেইরি ফার্ম, ধানমন্ডির হাতিরপুলে সাড়ে ৪ কাঠা জমিতে একটি নির্মাণাধীন ১০তলা ভবন ছাড়াও কলাবাগানসহ রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে অন্তত ১৫টি ফ্ল্যাট রয়েছে মালেকের। এছাড়া বিভিন্ন ব্যাংকে বিপুল পরিমাণ অর্থও জমা আছে তার।

এ বিষয়ে দুদক বলছে, মালেকসহ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ৪৫ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে গতবছর থেকে অনুসন্ধান করছেন তারা।

সোমবার দুর্নীতি দমন কমিশনের প্রধান কার্যালয়ের সামনে দুদক সচিব মুহাম্মদ দিলোয়ার বখত সাংবাদিকদের বলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে একদল কর্মকর্তা-কর্মচারী সিন্ডিকেট করে দুর্নীতি করছে, এমন অভিযোগের ভিত্তিতে ২০১৯ সাল থেকে আমরা একটি অনুসন্ধান টিম গঠন করি। ইতোমধ্যে মালেকসহ ৪৫ জনের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান ও তদন্ত চলছে। এদের মধ্যে ১২ জনের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলাও হয়েছে। প্রাথমিক অনুসন্ধানে আব্দুল মালেক ও তার স্ত্রীর নামে ঢাকায় সাতটি প্লট এবং এসব প্লটে চারটি বাড়ির সন্ধান পাওয়া যায়।

অবৈধ সম্পদের প্রাথমিক সত্যতা পেয়ে গত ১৬ সেপ্টেম্বর মালেক ও তার স্ত্রীর সম্পদ বিবরণী দাখিলের জন্য নোটিশ পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *