জেলা প্রতিনিধি,জামালপুর:

মাদকসেবী আল-আমীনের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে ভাড়াটে খুনিদের সঙ্গে নিয়ে ঘাড় মটকে তাকে হত্যা করেন বাবা ও ছোট ভাই। পরে হাত-পা বেঁধে তার লাশ ভাসিয়ে দেওয়া হয় খালের পানিতে।

নিহতের ছোট ভাই আরিফুলকে গ্রেফতারের পর পুলিশ ও ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দীর মাধ্যমে বেড়িয়ে এসেছে আল-আমীনের হত্যা রহস্য।

বৃহস্পতিবার দুপুরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান জামালপুরের পুলিশ সুপার মো. দেলোয়ার হোসেন। তিনি বলেন, শেরপুর জেলার কাজীগলি এলাকার আমিরুল ইসলামের বড় ছেলে মাদকসেবী আল-আমীনের অত্যাচারে পুরো পরিবার অতিষ্ঠ হয়ে পড়ে।

এক পর্যায়ে বাবা আমিরুল তার ছোট ছেলে আরিফুল ও দুই ভাড়াটে খুনি নিয়ে আল-আমীনকে জামালপুরের পূর্বদিঘুলী গ্রামে এনে হত্যা করেন। গত ২ আগস্ট জামালপুর নারায়নপুর তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ ওই গ্রামের একটি খাল থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করে।

তিনি বলেন, এ ঘটনায় পুলিশ নিহতের ছোট ভাই আরিফুল এবং আক্তারুজ্জামান দুদু মৌলভী ও রুবেল মিয়া নামে তিনজনকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতার তিন জনই আদালতে হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

এসময় জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সীমা রানী সরকার, আবু সুফিয়ান ও শিবলী সাদিক উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *