আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) উন্নয়নশীল দেশগুলোতে করোনার ভ্যাকসিন ক্রয় এবং বিতরণের জন্য ৯০০ কোটি ডলারের তহবিল গঠন করেছে।

শুক্রবার (১১ ডিসেম্বর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ম্যানিলাভিত্তিক এ ব্যাংকটি জানিয়েছে ‘এশিয়া প্যাসিফিক ভ্যাকসিন একসেস ফ্যাসিলিটি (এপিভিএএক্স)’ নামক এ তহবিলের কথা।

আশার কথা হল, সদস্য দেশ হিসেবে এ সহায়তা পাবে বাংলাদেশও।

এডিবির প্রেসিডেন্ট মাসাতসুগু আসাকাওয়া জানান, ভ্যাকসিনের সুষ্ঠু বিতরণের জন্য সব দেশকে এবং আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

এডিবি জানায়, সদস্য দেশগুলোর জন্য ৫০ কোটি ভ্যাকসিনের আমদানি নিশ্চিত করবে সংস্থাটি। পাশাপাশি হিমাগারে সংরক্ষণ, বিমানে পরিবহন, দেশগুলোতে সংরক্ষণ ও বিতরণেও সরবরাহ করা হবে এডিবির অর্থ।

এশিয়ার দেশগুলো বিভিন্নভাবে ভ্যাকসিন আমদানির পরিকল্পনা করছে। তবে ফিলিপিন্স আর ইন্দোনেশিয়ার মতো দেশগুলো ভ্যাকসিন বিতরণের ক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়বে। কারণ এই ভ্যাকসিন সংরক্ষণ করতে হবে মাইনাস ৭০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায়।

সংস্থাটির প্রেসিডেন্ট মাসাতসুগু আসাকাওয়া বিবৃতিতে বলেন, ‘আমরা জানি, করোনার বিস্তার ঠেকাতে নিরাপদ আর কার্যকর টিকাদান কর্মসূচির বিকল্প নেই। জীবন বাঁচাতে, কর্মক্ষেত্রে, ভ্রমণে সব কাজেই আস্থা ফেরাতে ভ্যাকসিনের সুষ্ঠু বিতরণ ও প্রয়োগ নিশ্চিত করতে হবে। সংকটের সময় নিশ্চিত করতে চাই, এডিবির সদস্য দেশগুলোর তহবিল সংকট হবে না। সাধারণ মানুষের কাছে ভ্যাকসিন পৌঁছে দিতে হবে।’

এদিকে ডয়েচে ভেলের করা এক ফ্যাক্ট চেকে দেখা যায়, বিশ্বের ৮০টি ধনী বা প্রায় ধনী দেশ ৯২টি গরিব ও মাঝারি আয়ের দেশকে এ ব্যাপারে সাহায্য করবে বলে ঠিক হয়েছে। এই ১৭২টি দেশে বিশ্বের প্রায় ৭০ শতাংশ মানুষ থাকেন। এই পরিকল্পনার লক্ষ্য, বিশ্বের বিভিন্ন ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারক যে ভ্যাকসিন তৈরি করবে, তাদের থেকে নিয়ে সরকারের কাছে তা পৌঁছে দেওয়া। অধিকাংশ ধনী দেশ কোভ্যাক্সকে সাহায্য করার জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ, যাতে গরিব দেশগুলোও ভ্যাকসিন পায়।

ফাইজার ও বায়োটেকও করোনার প্রতিষেধক গরিব দেশে দিতে উৎসাহী। অক্সফোর্ড/অ্যাস্ট্রাজেনেকা জানিয়েছে, তাদের ৬৪ শতাংশ ডোজ উন্নয়নশীল দেশের মানুষের জন্য থাকবে। ইইউ ইতিমধ্যেই কোভ্যাক্সকে ৫০ কোটি ইউরো দেয়ার কথা ঘোষণা করেছে৷ এই অবস্থায় মনে হচ্ছে, গরিব দেশগুলো ভ্যাকসিন পাবে, কিন্তু তা তাদের হাতে পৌঁছতে কয়েক বছরও লেগে যেতে পারে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *