ভোলা প্রতিনিধি:


ভোলার চরফ্যাশনে জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গিয়েছে চর কুকরী-মুকরি, ঢালচর ও চরপাতিলাসহ বেশ কয়েকটি নিচু এলাকা। এতে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে অন্তত দুই হাজার মানুষ। ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে নদী ও সাগর মোহনা উত্তাল হতে শুরু করে। এতে অতি জোয়ার সৃষ্টি হয়। যে কারণে তলিয়ে যায় নিম্নাঞ্চল।

পানির উচ্চতা বেড়ে যাওয়ায় জনমনে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। তবে এখন পর্যন্ত বড় ধরনের কোনো ক্ষয়-ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। ঢালচর ইউপি চেয়ারম্যান সালাম হাওলাদার এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সালাম হাওলাদার বলেন, ‘ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে নদী ও সাগরের মোহনা উত্তাল হয়ে পড়েছে। জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে পুরো ইউনিয়ন। আমাদের ইউনিয়নের সাত থেকে ৮০০ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। পাশের ইউনিয়নগুলোরও একই অবস্থা। প্রায় দুই হাজার পরিবার প্লাবনে অচল হয়ে পড়েছে।’ নিজ ইউনিয়নের ক্ষতিগ্রস্থদের সাহায্যে তালিকা তৈরি হচ্ছে বলেও তিনি জানান।

চর কুকরী-মুকরি ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাসেম মহাজন জানান, অতি জোয়ারে পুরো এলাকা তলিয়ে গেছে। রাস্তা-ঘাট, মাছের ঘেরসহসহ গুরুপ্তপুর্ণ স্থাপনা তলিয়ে গেছে। এদিকে জেলার ৪০টি দ্বীপচরকে ঝুঁকিপুর্ণ চিহ্নিত করে সেখানকার ৩ লাখ মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে আনার প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলেও তিনি জানান।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *