চাঁদপুর প্রতিনিধি:

চাঁদপুর পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের গণি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ভোট কেন্দ্রটি নিয়ন্ত্রন নিয়ে নৌকা প্রতিকের প্রার্থীর দুই গ্রুপের মাঝে সংঘর্ষের সময় ইয়াছিন মোল্লা (১৭) নামক এক যুবককে গলা কেটে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের দূর্বৃত্তরা।

শনিবার (১০ অক্টোবর) দুপুরে কেন্দ্রটিতে ভোট গ্রহন চলা কালে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আরো ডজন খানেক লোক আহত হয়েছে। নিহত ইয়াছিন  শহরের কোড়ালিয়া রোডের মো. হারুন মোল্লার ছেলে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শনিবার দুপুরে কেন্দ্রের ভেতরে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী অ্যাডভোকেট জিল্লুর রহমান জুয়েলের সমর্থকরা ভোট কেন্দ্র নিয়ন্ত্রনে নিজেদের মধ্যেই বড়-ছোট নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

সংঘর্ষ চলাকালে দুই গ্রুপের লোকেরাই ছুরি দিয়ে প্রতিপক্ষকে আঘাত করতে শুরু করে।নিহত ইয়াছিনের হাতে কোন ছুরি না থাকায় তাকে অন্যরা অতিরিক্ত ছুকিাঘাতের ফলে তাৎক্ষনি মাটিতে লুটিয়ে পড়ে।পরে তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। অবস্থা বেগতিক দেখে তাকে ঢাকা পাঠান চিকিৎসকরা। ঢাকা নেয়ার পথে শহরতলী বাবুরহাট এলাকায় ইয়াছিন মারা যায়।

চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. সুজাউদ্দৌলা বলেন, ওই যুবকের অবস্থা গুরুতর ছিল। ছুরিকাঘাতে তার গলার রগ কেটে যায়। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণেই তার মৃত্যু হয়েছে।

চাঁদপুর মডেল থানার ওসি নাসিম উদ্দিন বলেন, এটি কোনো নির্বাচনী সংঘাত নয়। নিজেদের মধ্যে বড়-ছোট নিয়ে সংঘর্ষে সাঈদ নামের এক যুবক ইয়াছিনের গলা ও শরীরে ছুরিকাঘাত করেন। চাঁদপুর সদর হাসপাতাল থেকে ঢাকা নেয়ার পথে ইয়াছিন মারা যান।এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের আমরা খুঁজে বের করে আইনের আওতায় নিয়ে আসবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *