পটিয়া(চট্রগ্রাম) প্রতিনিধি:

ভূল চিকিৎসার অভিযোগে পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক ডাক্তারকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে রুগীর স্বজনদের বিরুদ্ধে।

শুক্রবার (৯ অক্টোবর ) দুপুরে পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পানিতে ডুবে যাওয়া এক শিশুকে আনা হয় কর্তব্যরত চিকিৎসক ইসিজি করার পর স্বজনদের জানান শিশুটি মৃত। পরে পরিবার শিশুটিকে বাড়িতে নিয়ে গেলে শিশুটির মাংসপেশি নড়ে ওঠে। যা দেখে স্বজনরা শিশুটিকে আবারও হাসপাতলে নিয়ে আসে এবং জীবিত বলে দাবি করে। এসময় চিকিৎসকরা বিষয়টি বোঝানোর চেষ্টা করলে ‘ভুল’ চিকিৎসার অভিযোগ এনে দায়িত্বরত চিকিৎসককে বেধড়ক মারধর করে।

মারধরের শিকার চিকিৎসক জিয়া উদ্দিন মুহাম্মদ সাকিব। তিনি পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভারপ্রাপ্ত আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

পরে চিকিৎসকের উপর হামলার ঘটনায় পটিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *