আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের বিজয়ওয়াদায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য ব্যবহৃত হোটেলে ভয়াবহ আগুনের ঘটনায় ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।

রোববার ভোর ৫টার দিকে ওই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনার সময়ে ওই হোটেলে ৩০ জন করোনারোগী ছিলেন বলে জানা গেছে।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ৩০ মিনিটের মধ্যেই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। তবে আতঙ্কিত হয়ে পড়ে রোগীরা। দুই ব্যক্তি জীবন বাঁচাতে ভবন থেকে লাফ দেয়।

তাদের একজনের স্বজন জানিয়েছেন, ওই ব্যক্তিকে মাত্র দু’দিন আগে হাসপাতাল থেকে কোয়ারেন্টাইনের জন্য হোটেলটিতে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল। তার পায়ের গোড়ালিতে ফাটলের সৃষ্টি হয়েছে।

এখন পর্যন্ত হোটেল থেকে বিশ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে, আরও কয়েকজন ভবনের ভিতরে আটকা পড়ে রয়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

কৃষ্ণা এলাকার ডিস্ট্রিক্ট কালেক্টর মোহাম্মদ ইমতিয়াজ বলেন, প্রাথমিক রিপোর্ট অনুসারে শর্ট সার্কিট থেকেই আগুনের সূত্রপাত হয়ে বলে ধারণা করা হচ্ছে, তবে তদন্ত করলে সঠিক কারণ জানা যাবে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের রাখার জন্য হোটেল স্বর্ণা প্যালেস লিজ নিয়েছিলো রমেশ হাসপাতাল।

একজন সিনিয়র পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, এই ঘটনায় ১৫-২০ জন আহত হয়েছে, তাদের ২-৩ জনের অবস্থা সঙ্কটাপন্ন।

এ মাসে ভারতে করোনা রোগীদের হাসপাতালে এটি দ্বিতীয় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা।

গত ৬ আগস্ট গুজরাটের আহমেদাবাদে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভয়াবহ আগুনে পুড়ে মারা যান ৮ করোনা আক্রান্ত রোগী।

সেই ঘটনায় ৩৫ জন রোগীকে অন্য হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *