নিজস্ব প্রতিবেদক:
শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেছেন, যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নিজস্ব জমি নেই, সে রকমের প্রতিষ্ঠানকে ভবিষ্যতে আর এমপিও প্রদান করা হবে না। ইতিমধ্যে ভাড়া বাড়িতে স্থাপিত যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিও প্রদান করা হয়েছে, তাদের আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে নিজস্ব জায়গায় প্রতিষ্ঠান স্থানান্তর করতে হবে।

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমপিও নীতিমালা (সংশোধিত) ২০২০–এর ওপর আয়োজিত এক ভার্চ্যুয়াল মিটিংয়ে সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

দীপু মনির সভাপতিত্বে ভার্চ্যুয়াল মিটিংয়ে আরও যুক্ত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেনসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, কোনো ট্রাস্ট বা সংস্থা দ্বারা পরিচালিত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ট্রাস্ট বা সংস্থার সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে এমপিওভুক্ত করা হবে। এ রকমের যেসব প্রতিষ্ঠান ইতিমধ্যে এমপিওভুক্ত হয়েছে, ট্রাস্ট যদি না চায়, তাহলে সেসব প্রতিষ্ঠানের এমপিও বাতিল করা হবে।

এবং ওই সব প্রতিষ্ঠানে এমপিওভুক্ত শিক্ষকেরা চাইলে অন্য এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চাকরি করতে পারবেন। অথবা আগের প্রতিষ্ঠানে থেকে যেতে পারবেন। তা ছাড়া ভবিষ্যতে ট্রাস্টের কোনো প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির জন্য আবেদন করতে হলে ট্রাস্টের পূর্বানুমোদন নিতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *