মৌলভীবাজার,প্রতিনিধি:

জেলার বড়লেখায় ধর্ষণের অভিযোগে এক  সিএনজি চালকসহ দুই জনকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার (৯ অক্টোবর) সকাল ৭টায় আতুয়া এলাকায় এক তরুণী (১৮ ) সিএনজি চালকের সহায়তায় ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে থানায় অভিযোগ করে ভুক্তভোগী তরুণী। মামলার পর-পরই পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত দুজনকে গ্রেফতার করেছে।ধর্ষণের শিকার ওই তরুণীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হল- বড়লেখা উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নের বাদেপুকুরিয়া গ্রামের মৃত রফিক উদ্দিনের ছেলে দেলোয়ার হোসেন (২৫) ও উপজেলার চুকারপুঞ্জি গ্রামের মাসুক মিয়ার ছেলে সিএনজি চালক আলী আহমদ (১৮)।

মামলার অভিযোগ পত্রে উল্যেখ করা হয়,ভুক্তভোগী তরুণীর নানা অসুস্থতার কারনে শুক্রবার ভোরে নানা বাড়িতে  রওনা করে ওই তরুণী,শাহবাজপুর বাজারে আসার পর তরুণীর খালাতো ভাই সিএনজি চালক আলী আহমদের গাড়িতে তুলে দেন তাকে। পথে আলী আহমদ শাহবাজপুর বাজারের পাহারাদার দেলোয়ারকে উঠান।

একপর্যায়ে গাড়িতে দেলোয়ার তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।তরুণী গাড়ি থেকে নামার চেষ্টা করলে সিএনজি চালকের সহযোগিতায় দেলোয়ার জোর করে তাকে আতুয়া এলাকার নির্জন স্থানে নিয়ে যায়।  সেখানে দেলোয়ার তাকে ধর্ষণ করে।

নানা বাড়ি না যাওয়ায় তাকে খুঁজতে গিয়ে খালাতো ভাই ও স্থানীয় লোকজন আতুয়া এলাকায় পেয়ে তাকে উদ্ধার করে।

বড়লেখা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার বলেন, এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।ধর্ষণের মামলায় তাদের আদালতে প্রেরন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *