ব্যুরো প্রধান, রাজশাহী:
রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় স্ত্রীর বিরুদ্ধে প্রবাসী স্বামীকে খাবারের সঙ্গে বিষ মিশিয়ে খাইয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রবাসী স্বামীর পাঠানো টাকা আত্মসাতের জন্য স্ত্রী এই ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

রোববার দিবাগত গভীর রাতে উপজেলার পশ্চিমপাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। পরে সোমবার দুপুরে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজের (রামেক) মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

নিহত ব্যক্তির নাম শাহাদত হোসেন (৪৮)। তিনি বাগমারার পশ্চিমপাড়া গ্রামের মৃত ওয়াহেদ বক্সের ছেলে। তিনি ইরাকে থাকতেন। তার স্ত্রীর নাম আঙ্গুরি বেগম (৩৬)। এ ব্যাপারে পুলিশ তাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করেছে।

নিহতের ছোটভাই পুলিশ সদস্য জাহাঙ্গীর আলম জানান, শাহাদত হোসেন দীর্ঘদিন ধরে ইরাকে ছিলেন। গত মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে দেশে ফিরে তিনি হোম কোয়ারেন্টিনে ছিলেন। এ সময় বিদেশ থেকে পাঠানো টাকার হিসাব নিয়ে স্ত্রী আঙ্গুরি বেগমের সঙ্গে বিরোধ দেখা দেয়। একপর্যায়ে স্ত্রী তার বাবার বাড়িতে চলে যান। পরে ঈদের দুইদিন আগে তাকে বাড়িতে আবারও ফিরিয়ে আনা হয়।

নিহত শাহাদত হোসেনের ভাইদের অভিযোগ, রোববার দিনগত রাতে স্ত্রী আঙ্গুরি বেগম খাদ্যের সঙ্গে বিষ মিশিয়ে খাওয়ান। গভীর রাতে অসুস্থ হয়ে পড়েন শাহাদত। পরে পরিবারের সদস্যরা টের পেয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

জানতে চাইলে বাগমারা থানার ওসি আতাউর রহমান বলেন, নিহতের স্বজনরা হত্যার অভিযোগ করছেন। তবে প্রাথমিকভাবে মনে হয়েছে শাহাদত হোসেন গ্যাস্ট্রিকেই মারা গেছেন। মারা যাওয়ার আগেই তিনি পেনটনিক্স ট্যাবলেট ও কারমিনা সিরাপ খেয়েছেন। তার স্ত্রীই এমনটাই দাবি করছেন। তাই আপাতত অপমৃত্যুর মামলা করে করে লাশ ময়নাতদন্ত করা হচ্ছে।

ওসি বলেন, ময়নাতদন্তের রিপোর্টে অন্য কিছু আসলে পরে সেই অনুযায়ী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *