মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি:
গত দুদিন আগে বাল্যবিয়ে দেবেন না এমন মুচলেকা দেওয়ার পরও গোপনে বাল্য বিয়ে দেওয়ার অপরাধে ছেলের বাবাকে কারাদণ্ড ও কনের মাকে জরিমানা করা হয়েছে।

আজ শনিবার বিকেল সোয়া ৪টার দিকে সদর উপজেলার দিঘি ইউনিয়নের ছুটি ভাটভাউর এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে এই দণ্ড প্রদান করেন সহকারী কমিশনার (ভুমি) আলী রাজীব মাহমুদ মিঠুন।

তিনি জানান, স্থানীয় জনপ্রতিনিধির কাছ থেকে বাল্যবিবাহের সংবাদ পেয়ে গত ১৩ তারিখ উক্ত স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। উভয়পক্ষের অভিভাবক জানান তাদের সন্তান প্রাপ্তবয়স্ক হবার আগে কোনো বিয়ের আয়োজন করবেন না। স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি ও স্বাক্ষীর উপস্থিতিতে তারা এই বিষয়ে মুচলেকা সম্পাদন করেন।

তিনি আরও জানান, আজ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় বর ও কনের পিতা মাতা গোপনে বিবাহটি সম্পন্ন করেছেন। বিয়ের পর অপ্রাপ্ত বয়স্ক বর কনে একত্রে আছে। ঘটনাস্থলে মোবাইল কোর্ট উপস্থিত হয়ে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি ও স্বাক্ষীর উপস্থিতিতে জিজ্ঞাসাবাদ করলে, বরের পিতা ও কনের মা স্বীকার করেন, তারা জেনেশুনে গোপনে তাদের অপ্রাপ্তবয়স্ক সন্তানের বিবাহ সম্পাদন করে অপরাধ করেছেন।

এ ঘটনায় বর আল আমিন (২০) এর বাবা নাগর আলীকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং কনে ইশা আক্তার এর মা রুপালি বেগমকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *