টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:


ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে ঘরমুখো মানুষ ও যানবহনের চাপে বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের ৩৫ কিলোমিটার জুড়ে সৃষ্টি হয়েছে ব্যাপক যানজট। কঠোর লকডাউন শিথিলের তৃতীয় দিন আজ শনিবার যানজটে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন চালক, যাত্রী ও গরু ব্যবসায়ীরা।

যানবাহনের চাপ সামাল দিতে না পেরে গতকাল রাত থেকে কয়েক দফা টোল আদায় বন্ধ রাখেন বঙ্গবন্ধু সেতু কর্তৃপক্ষ। এ সময় সেতু থেকে টাঙ্গাইলের বাইপাস পর্যন্ত ৩০ কিলোমিটার জুড়ে যানজট তৈরি হয়।

যানজটের কারণে চালক ও যাত্রীদের পোহাতে হচ্ছে চরম ভোগান্তি। এ ছাড়াও গরু নিয়ে উত্তরাঞ্চল থেকে ঢাকা অভিমুখে যাত্রা করা ব্যবসায়ীরা পড়েছেন চরম বেকায়দায়। সড়কেই কেটে যাচ্ছে ঘণ্টার পর ঘণ্টা।

বাসের এক যাত্রী বলেন, ‘ঈদ উপলক্ষে গ্রামের বাড়ি যাচ্ছি। টাঙ্গাইল এসে প্রায় চার ঘণ্টা যানজটে আটকে আছি। প্রতি বছর ঈদের সময় একই চিত্র। রাস্তা ভাল হয়েছে। ভেবেছিলাম, এবার যানজট হবে না। কিন্তু ঘটনা উল্টো।’

এলেঙ্গা হাইওয়ে ফাড়ির সার্জেন্ট ইয়াসির আরাফাত জানান, মধ্যরাত থেকেই ঘরমুখো যানবাহনের চাপ বাড়ে। যানজট নিরসনে পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে।

এদিকে সেতু কর্তৃপক্ষ গত ২৪ ঘণ্টার হিসাবে জানায়, বঙ্গবন্ধু সেতুর উপর দিয়ে বাস ট্রাক ও অন্যান্য পরিবহন মিলিয়ে ৩৩ হাজার ৯১২টি যান পারাপার হয়েছে। এতে টোল আদায় হয়েছে ২ কোটি ৯২ লক্ষ ৭৪ হাজার ৮০০ টাকা।

বঙ্গবন্ধু সেতুর সাইট কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী আহসানুল কবীর পাভেল বলেন, ‘গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড পরিমাণ গাড়ি পারাপার হয়েছে। আজকে যে পরিমাণ গাড়ি সেতু দিয়ে পারাপার হয়েছে তাতে টোল আদায় আরও বেশি হবে।’

এদিকে ঢাকা টাঙ্গাইল বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়ক পরিদর্শন করে টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক ড. মো. আতাউল গনি বলেন, ‘যানজট নিরসনের জন্য সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *