নিজস্ব প্রতিবেদক:
প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শোক দিবস পালিত হবে ভার্চুয়াল মাধ্যমে। দিবসটি পালনে সব প্রাথমিক বিদ্যালয়কে ২ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে।

বুধবার (৫ আগস্ট) অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রশাসন) মো. মিজানুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জাতীয় শোক দিবস পালনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। এক্ষেত্রে অবশ্যই সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সব কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে। অধিদপ্তরের অধীনস্ত অফিস ও প্রতিষ্ঠান প্রধানরা এর সমন্বয় করবেন।

জানা গেছে, গত ১৬ জুলাই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালনে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে একটি সভা হয়। সভায় সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দিবসটি যথাযথ মর্যাদায় পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিদ্ধান্তগুলোর মধ্যে রয়েছে, আগামী ১৫ আগস্ট সব সরকারি-বেসরকারি আধাসরকারি স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হবে।

ভার্চুয়াল মাধ্যম ব্যবহার করে এদিন সব সরকারি-বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মাদরাসা, কলেজ, মেডিক্যাল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ও অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শোক দিবসের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ আলোচনা সভা, কবিতা পাঠ, রচনা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, চিত্র প্রদর্শনী, হামনাত প্রতিযোগিতা ও দোয়া মাহফিল আয়োজন করবে।

এছাড়া সংসদ টেলিভিশনে শিক্ষার্থীদের জন্য বঙ্গবন্ধুর জীবনভিত্তিক আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে। বঙ্গবন্ধুর জীবনভিত্তিক ২৬টি বই সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংগ্রহ ও পাঠের ব্যবস্থা করা হবে। শোক দিবস পালনে সব প্রাথমিক বিদ্যালয় পোস্টার বিতরণ করা হবে।

এছাড়া এদিন বাদ জোহর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর মসজিদসহ দেশের সব মসজিদে বিশেষ মোনাজাত করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *