অনলাইন ডেস্ক:

যুক্তরাষ্ট্র-চীন প্রযুক্তি যুদ্ধে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পরবর্তী লক্ষ্যবস্তু চীনা প্রযুক্তি কোম্পানি টেনসেট।

চীনা কোম্পানিটি যদি মধ্য সেপ্টেম্বর নাগাদ বেঁধে দেওয়া সময়ে তাদের জনপ্রিয় চ্যাটিং অ্যাপ-উইচ্যাটের মার্কিন বাজারে ব্যবসার স্বত্ব স্থানীয় প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রি না করে, তাহলে এটিকে নিষিদ্ধ করা হবে।

ট্রাম্পের সাম্প্রতিক ঘোষণা বিনিয়োগকারীদের মধ্যে তুমুল আলোড়ন সৃষ্টি করে এবং এর সম্ভাব্য ফলাফল বের করতে সংশ্লিষ্ট খাতের বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ও বিশ্লেষকদের মধ্যে চাঞ্চল্য দেখা যাচ্ছে।

ট্রাম্পের ঘোষণার পরপরই হংকং বাজারে টেনসেটের বাজারমূল্য ১০ শতাংশ হ্রাস পায়। এরপর অবশ্য ওই ক্ষতির অনেকটা কাটিয়ে ওঠে কোম্পানিটি কিন্তু তারপরও পুঁজিবাজারের কার্যদিবস শেষ করে শেয়ারের ৫ শতাংশ দরপতন নিয়ে। টেনসেটের কল্যাণে হংকং বাজারের মূল সূচক হ্যাং সেং ইনডেক্স (এইচএসআই) এক দশমিক ৬ শতাংশ পতনের মুখ দেখে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তার বিশেষ নির্বাহী আদেশটি জারি করেন। এর আওতায় আগামী ৪৫ দিনের মধ্যে মার্কিন বাজারের ব্যবসার স্বত্ব যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানির কাছে বিক্রিতে ব্যর্থ হলে- চীনা অ্যাপ টিকটক এবং উইচ্যাটকে নিষিদ্ধ করা হবে। টিকটকের মালিকানা চীনের বাইটড্যান্সের আর উইচ্যাট টেনসেটের হাতে। ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশের মূল মালিকানা কোম্পানিগুলোকে স্বত্ব বিক্রির কঠিন শর্ত দিয়ে মধ্য সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়।

ট্রাম্প প্রশাসন উইচ্যাটের ব্যাপারে কেন কঠোর হচ্ছে তা বোধগম্য নয়। তবে এই অন্তর্ভুক্তি নির্দেশ করে যে, যুক্তরাষ্ট্রে সেবা প্রদানকারী একাধিক চীনা অ্যাপ বাতিলেই ব্যগ্র ওয়াশিংটন।

”টিকটক এবং উইচ্যাটকে ঘিরে নেওয়া সিদ্ধান্তের মধ্য দিয়ে ভোক্তা প্রযুক্তির বাজারে নজিরবিহীন হস্তক্ষেপ করলো মার্কিন সরকার” বলছিলেন ভূ-রাজনৈতিক ঝুঁকি বিশ্লেষক সংস্থা ইউরেশিয়া গ্রুপের বৈশ্বিক প্রযুক্তি বিভাগের প্রধান পল ট্রিলো।

গত শুক্রবার প্রকাশিত এক গবেষণা নোটে ট্রিলো জানান, ”এই প্রথমবার কোটি কোটি মানুষের মুঠোফোনে ব্যবহার করা জনপ্রিয় অ্যাপ বাতিলের প্রচেষ্টা করেছে মার্কিন সরকার।”

দুর্ভোগে পড়বেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী চীনা নাগরিকেরা:

যুক্তরাষ্ট্রে উইচ্যাট সেবা বন্ধ হলে- তাতে সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত হবেন প্রবাসী চীনা ছাত্র আর চীনা বংশদ্ভুত মার্কিন নাগরিক সম্প্রদায়।

চীনের সবচেয়ে জনপ্রিয় চ্যাটিং অ্যাপ ওয়েইশিন এর বহিঃবিশ্বের বাজার সংস্করণ হচ্ছে উইচ্যাট। এই অ্যাপ শুধু তাৎক্ষনিক বার্তা প্রেরণ ছাড়াও আরো অনেক সেবার সঙ্গে গ্রাহককে যুক্ত করে। যেমন; এর মাধ্যমে তারা অর্থও লেনদেন করতে পারেন।

ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশে বলা হয়েছে, নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হলে তার আওতায় উইচ্যাট থেকে করা যে কোনো পরিমাণ আর্থিক লেনদেন অবৈধ বলে পরিগণিত হবে।

এ প্রেক্ষিতে চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলে, তারা উইচ্যাট এবং টিকটককে নিষিদ্ধ করার মার্কিন নির্বাহী আদেশের বিরুদ্ধে তারা তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছে।

”যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় নিরাপত্তার দোহাই দিয়ে বিদেশি মালিকানাধীন বৈধ ব্যবসায়ে জড়িত প্রতিষ্ঠানকে শোষণ করতে রাষ্ট্রক্ষমতার অপ-ব্যবহার করছে” সংবাদ সম্মেলনে বলেন চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রালয়ের মুখপাত্র ওয়াং ওয়েবিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *