অনলাইন ডেস্ক:

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার  এক বিশেষ বৈঠকে সংস্থাটির নেতারা জানিয়েছেন,বিশ্বব্যাপি  প্রতি ১০ জন মানুষের মধ্যে একজন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে থাকতে পারেন।  তারা জানিয়েছেন, সারাবিশ্বে কমপক্ষে ৩ কোটি ৫০ লাখ মানুষ নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

কিন্তু বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাব মতে, প্রকৃত আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াতে পারে ৮০ কোটি। এই তথ্য প্রকাশ করেছেন, অনলাইন বিবিসি।

বিশেষজ্ঞরা বলেছেন,বিশ্বের বেশির ভাগ মানুষই করোনা ভাইরাসের ঝুঁকিতে। করোনা ভাইরাস যাদের ক্ষেত্রে পরীক্ষায় নিশ্চিত করা হয়েছে, আক্রান্তদের প্রকৃত সংখ্যা তার চেয়ে অনেক বেশি হতে পারে। করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় বিশ্বজুড়ে কি করা হচ্ছে, তা নিয়ে আলোচনা হচ্ছিল সুইজারল্যান্ডের জেনেভাতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সদর দপ্তরে।

বিশ্বব্যাপি করোনা সংক্রমণের ১০ মাস চলছে। কিন্তু সংক্রমণ বন্ধের কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। অনেক দেশে বিধিনিষেধ শিথিল করার পর দ্বিতীয় দফায় সংক্রমণ দেখা দিয়েছে। কোথাও কোথাও আক্রান্তের সংখ্যা অনেক বেশি।

এই ভাইরাসকে রীতিমত উপেক্ষা করা যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পেরও সংক্রমণ হয়েছে। তাকে একটি সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করার পর সোমবার সন্ধ্যায় সেখান থেকে তিনি হোয়াইট হাউজে ফিরে গেছেন। আবার বিশ্বের অন্য যেকোনো দেশের চেয়ে যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মৃত্যু এবং সংক্রমণ সর্বাধিক।

নতুন সংক্রমণ রোধ করতে মঙ্গলবার থেকে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে সব মদের বার বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। সোমবার ইরানে করোনায় মারা গেছেন কমপক্ষে ২৩৫ জন।

এদিন সেখানে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৯০২ জন। এ দুটি সংখ্যাই সেখানে রেকর্ড পরিমাণ। সপ্তাহান্তে কর্তৃপক্ষ স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, লাইব্রেরি, মসজিদ, রাজধানী ও এর আশপাপশের সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ ঘোষণা করেছে।

স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদে আবার লকডাউন দেয়া হয়েছে। নাগরিকদেরকে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের না হতে বলা হয়েছে। বিশ্বের শ্রেষ্ঠ বিমানবন্দর হিসেবে পরিচিত সিঙ্গাপুরের চ্যাঙ্গি বিমানবন্দরে ভবিষ্যতে আরো ভয়াবহতার সতর্কতা দেয়া হয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার স্বাস্থ্য বিষয়ক ইমার্জেন্সি কর্মসূচির নির্বাহী পরিচালক মাইক রায়ানের হিসাবে বিশ্বের মোট জনসংখ্যার শতকরা ১০ ভাগ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়ে থাকতে পারেন। এ হিসেবে প্রতি ১০ জনের মধ্যে একজনের করোনা সংক্রমণ হয়েছে। এই অবস্থা দেশভেদে ভিন্ন। গ্রাম ও শহর এলাকায় ভিন্ন। বয়সের হিসেবেও ভিন্ন হতে পারে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *