আদালত প্রতিবেদক:

পুলিশী নির্যাতনে মৃত্যুর আইনে ঐতিহাসিক রায় দিলেন আদালত। মিরপুরের পল্লবী থানা হেফাজতে জনি হত্যা মামলায় পুলিশের তিন সদস্যকে যাবজ্জীবন সাজা দেয়া হয়েছে। এছাড়া পুলিশের অন্য দুই সোর্সকে সাত বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয়।

২০১৪ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি মিরপুর-১১ নম্বর সেক্টরে বন্ধুর গায়ে হলুদ অনুষ্ঠানে পুলিশের সোর্সের অশালীন আচরণের প্রতিবাদ করায় ইশতিয়াক হোসেন জনি ও তার ভাই ইমতিয়াজ হোসেনকে পল্লবী থানায় নিয়ে রাতভর পেটানো হয়। জনির অবস্থা খারাপ হলে তাকে ঢাকা মেডিকেলে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় জনির ছোট ভাই রকি পল্লবী থানার সে সময়ের এসআই জাহিদ, এএসআই রাশেদুল, এএসআই কামরুজ্জামান ও ২ পুলিশ সোর্সের বিরুদ্ধে পুলিশের হেফাজতে মৃত্যু নিবারণ আইনে মামলা দায়ের করেন।

২০১৩ সালে পুলিশ হেফাজতে নির্যাতন ও মৃত্যু নিবারণ আইন প্রণয়ন হয়। ৭ বছর পর এ আইনে প্রথম কোনো মামলার রায় দিলেন আদালত। রায়ে তিন পুলিশ সদস্যকে যাবজ্জীবন সাজা দেয়া হয়। এছাড়া পুলিশের দুই সোর্সকে ৭ বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয়।

আদালতের রায়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন জনির পরিবার।

রাষ্ট্রপক্ষ বলেন, এই ঘটনায় ৫ জন আসামির ৩ জনের যাবজ্জীবন ও ২ জনের ৭ বছর কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

এ মামলায় ২৪ জন সাক্ষী আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন। রায়ের বিরুদ্ধে আসামি পক্ষের আইনজীবী উচ্চ আদালতে আবেদন করার কথা জানান।

এর আগে জনির মা, ভাই, দুই শিশু সন্তান সুবিচার দাবি করে আদালত প্রাঙ্গণে মানববন্ধন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *