পথেই শেষ পুরো পরিবার

কমলগঞ্জ,মৌলভীবাজার,প্রতিনিধি:
সিলেটে শুক্রবার সকালে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত পাঁচজনের পরিচয় মিলেছে।

নিহত স্বপন কুমার সরকার মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের ব্র্যাক কর্মকর্তা। অপর তিনজনের মধ্যে রয়েছেন তাঁর স্ত্রী, দুই সন্তান ও গাড়িচালক। স্বপনের অপর ছেলে গুরুতর আহত।

সিলেটের ওসমানীনগরে শুক্রবার সকালে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। বাস ও প্রাইভেটকারের মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই পাঁচজনের প্রাণহানি ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থলে পাওয়া দুটি জাতীয় পরিচয়পত্র দেখে দুজনের প্রাথমিক পরিচয় শনাক্ত করে। তবে তাঁদেরও বিস্তারিত পরিচয় তখন জানা যায়নি।

ব্র্যাকের কমলগঞ্জ শাখা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, নিহত স্বপন কুমার সরকার এই শাখার ব্যবস্থাপক। গ্রামের বাড়ি সুনামগঞ্জে। তিনি পরিবার নিয়ে কমলগঞ্জ শহরে থাকতেন। ঈদের ছুটি হওয়ায় তিনি একটি প্রাইভেটকার ভাড়া করে শুক্রবার স্ত্রী ঋদি সরকার (৪২) ও দুই ছেলেকে নিয়ে সুনামগঞ্জে গ্রামের বাড়িতে যাচ্ছিলেন।

সড়ক দুর্ঘটনায় এই চারজনের মৃত্যু হয়েছে। সড়ক দুর্ঘটনায় তাঁর অপর ছেলেও গুরুতর আহত। তাঁকে মুমূর্ষু অবস্থায় সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। স্বপনের তিন ছেলের নাম তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। মারা যাওয়া অপরজনের নাম আবুল হাসেম। তিনি প্রাইভেটকারটি চালক ছিলেন। বাড়ি কমলগঞ্জের আলীনগর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আলনীগর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) স্থানীয় ওয়ার্ডের সদস্য হায়দর আলী। তিনি বলেন, ঈদের ছুটি শুরু হওয়ায় ব্র্যাকের কমলগঞ্জ শাখার প্রায় সবাই এলাকা ছেড়েছেন। তবে ঘটনার খবর পেয়ে ব্র্যাকসংশ্লিষ্ট এলাকার অন্যদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। ওদিকে গাড়িচালক আবুল হাসেমের গ্রামের বাড়ি গোবিন্দপুরেও মাতম চলছে।

পরিবার সদস্যদের সঙ্গে নিয়ে তিনি লাশ আনতে সিলেটের পথে রওনা হয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *