অনলাইন ডেস্ক:

সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের গাড়ী থেকে বের হয়ে নৌবাহিনীর কর্মকতাকে মারধরের ঘটনায় ধানমণ্ডি থানায় জিডি করেন ভুক্তভোগী নৌবাহিনীর কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ওয়াসিম। এসময় নৌবাহিনীর কয়েকজন কর্মকর্তা থানায় উপস্থিত ছিলেন।

পুলিশ জানায়, নৌবাহিনীর এক কর্মকর্তার মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দিয়েছিল ‘সংসদ সদস্যে’ স্টিকার লাগানো হাজী সেলিমের গাড়ি। এরপর নৌবাহিনীর ওই কর্মকর্তা মোটরসাইকেল থামান এবং নিজের পরিচয় দেন। এসময় হাজী সেলিমের গাড়ী থেকে দুই জন ব্যক্তি নেমে লেফটেন্যান্ট ওয়াসিমকে মারধর করে। একপর্যায়ে ওই কর্মকর্তা আত্মরক্ষার চেষ্টা করেন।

মারধরের কারণে লেফটেন্যান্ট ওয়াসিম বেশ আহত হন। সাথে থাকা তার স্ত্রীর গায়েও হাত দেয়ার অভিযোগ পাওয়া যায়। ওয়াসিম তার স্ত্রীর বই কিনে মোটরসাইকেলে ফিরছিলেন। গাড়ীতে হাজী সেলিমের ছেলে ও তার নিরাপত্তাকর্মীসহ কয়েকজন ছিলেন বলে জানা যায়।

রোববার (২৫ অক্টোবর) সন্ধ্যার পর ধানমন্ডির কলাবাগান ক্রসিংয়ের কাছে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থলে লোকজন জমে গেলে সংসদ সদস্যের গাড়ি ফেলে মারধরকারীরা সরে যান। পরে পুলিশ এসে গাড়ি ও মোটরসাইকেলটি থানায় নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় একজন প্রত্যক্ষদর্শীর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পাওয়া যায়। সেখানে লেফটেন্যান্ট ওয়াসিমের মুখে রক্ত ও আঘাতের চিহ্ণ দেখা যায়। ভিডিওটিতে দেখা ও ধানমণ্ডি থানার সামনে থাকা জব্দকৃত হাজী সেলিমের গাড়ির নম্বর ছিল ঢাকা মেট্টো– ঘ ১১-৫৭৩৬। গাড়ী চালককেও থানা হেফাজতে নেওয়া হয়েছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

সংসদ সদস্য হাজী সেলিম ওই সময় গাড়ীতে ছিলেননা। বেশ কয়েক বছর ধরে গলায় সমস্যা থাকার কারণে তার কথা বলতে সমস্যা হয়।

video link:-

blob:https://www.facebook.com/28d7dc97-64d9-4924-84cf-ec06653406d0

সূত্র:-সময় নিউজ

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *