নোয়াখালী প্রতিনিধি:


নোয়াখালীর মাইজদী শহরে জেলা আওয়ামী লীগের তিনটি গ্রুপের সমাবেশকে কেন্দ্র করে দলীয় কর্মীদের অবৈধ অস্ত্র প্রদর্শনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এ ঘটনায় অবৈধ অস্ত্র প্রদর্শনকারী চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন উপজেলার কাদির হানিফ ইউনিয়নের মো. রাফেজ (২৫), বেগমগঞ্জের চৌমুহনী পৌরসভার পৌর হাজীপুর এলাকার মো. আবুল হায়াত রায়হান ওরফে খালাশী রায়হান (২৬), সদর উপজেলার পশ্চিম শুল্যকিয়া গ্রামের মো. ইউনুছ (৪০), উপজেলার কাশিপুর গ্রামের নুরুল আমিন (৩৯)।

জেলার পুলিশ সুপার শহীদুল ইসলাম জানান, নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি ঘোষণাকে কেন্দ্র করে গত ৫ সেপ্টেম্বর বিকেলের দিকে আওয়ামী লীগের তিনটি গ্রুপ পরের দিন একই স্থানে একই সময়ে সমাবেশের ঘোষণা দেয়। এ কর্মসূচি সফল করার জন্য গত ৫ সেপ্টেম্বর বিকেলে সাংসদ একরামুল করিম চৌধুরী গ্রুপ, মেয়র শহিদ উল্যা খান সোহেলের গ্রুপ এবং অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহিনের গ্রুপের মধ্যে অস্ত্রসহ ত্রিমুখী ধাওয়া, পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। যার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। এ সময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য ৯ রাউন্ড ফাঁকা গুলি করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

পুলিশ সুপার আরও জানান, পরে এ ঘটনায় সুধারাম থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কামাল উদ্দিন বাদী হয়ে সুধারাম থানার একটি মামলা করেন। পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে উক্ত ভিডিও ক্লিপ সংগ্রহ করে। ভিডিও ক্লিপ পর্যালোচনা করে অবৈধ অস্ত্র প্রদর্শনকারী ছয় মামলার আসামি মো. রাফেজকে শনাক্ত করে। পরবর্তীতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ চারজনকে গ্রেপ্তার করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *