অনলাইন ডেস্ক:

নতুন করোনা স্ট্রেইন বা করোনাভাইরাসের নতুন ধরন যুক্তরাষ্ট্রে দুজনের শরীরে শনাক্ত হয়েছে বলে গতকাল বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন সাউথ ক্যারোলাইনা অঙ্গরাজ্যের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা।

সাউথ ক্যারোলাইনা অঙ্গরাজ্যের স্বাস্থ্য খাতে কর্মরতদের প্রতি সতর্কতা অবলম্বনের নির্দেশনা দিয়েছেন সেখানকার স্বাস্থ্য ও পরিবেশ নিয়ন্ত্রণ বিভাগের জনস্বাস্থ্য পরিচালক ডা. ব্র্যানন ট্র্যাক্সলার।

গত ডিসেম্বরে প্রথম দক্ষিণ আফ্রিকায় করোনাভাইরাসের এই নতুন স্ট্রেইন বা ধরনটি ধরা পড়ে। অন্য ভাইরাসের চেয়ে এটি দ্রুত ছড়ায়। আর এই ভাইরাস মানবদেহের কোষগুলোকে সহজে কাবু করতে সক্ষম। তবে এটি অন্য করোনাভাইরাসের চেয়ে বেশি প্রাণঘাতী এমন কোনো তথ্যপ্রমাণ মেলেনি।

অন্যদিকে যুক্তরাজ্য এবং ব্রাজিলেও দ্রুত সংক্রমণ ছড়ায় এমন ধরনের ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। যুক্তরাজ্যের ধরনটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এরই মধ্যে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। আগামী মার্চ নাগাদ এটিই যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান ভাইরাস হিসেবে আবির্ভূত হতে পারে বলে দেশটির সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল (সিডিসি) ও ন্যাশনাল ইনস্টিটিউটস অব হেলথ জানিয়েছে।

বর্তমানে যেসব টিকা দেওয়া হচ্ছে সেগুলো নতুন ধরনের ভাইরাস প্রতিরোধে বেশি নাকি কম কাজ করবে তা পরিষ্কার নয় বলে জানিয়েছেন সিডিসি প্রধান ড. অ্যান্থনি ফসি। তবে, মার্কিন টিকা প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান নোভাভ্যাক্সের করোনার টিকা যুক্তরাজ্যের করোনার স্ট্রেইন প্রতিরোধে কার্যকর বলে দাবি করা হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে দুই কোটি ৬৩ লাখ ৩৮ হাজারের বেশি মানুষ। এদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে চার লাখ ৪৩ হাজারেরও বেশি মানুষের। চিকিৎসাধীন রয়েছে ৯৮ লাখ ২৪ হাজারের বেশি করোনা রোগী। বিশ্বখ্যাত পরিসংখ্যান সাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার আজ শুক্রবার সকাল নাগাদ এসব তথ্য জানিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *