সাভার (ধামরাই) প্রতিনিধি:
ঢাকার ধামরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক ও যাদবপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান (ইউপি) মিজানুর রহমান মিজুর বাড়িতে সরকারি ত্রাণসামগ্রী রাখার অপরাধে তাকে আটক করেছে র‌্যাব-৪।

গতকাল মঙ্গলবার গভীর রাতে নিজ গ্রাম আমছিমুরের বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়। আজ বুধবার সকালে তাকে ধামরাই থানায় হস্তান্তর করে র‌্যাব। বর্তমানে তিনি পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন।

আটকের সময় মিজানুর রহমানের ঘর থেকে ৩৫ ব্যাগ ত্রাণসামগ্রী উদ্ধার করে র‌্যাব-৪-এর সদস্যরা।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে জানা গেছে, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার’ ত্রাণসামগ্রী হিসেবে বিনামূল্যে যাদবপুর ইউনিয়নের বন্যাদুর্গতদের জন্য ১০০ ব্যাগ ত্রাণসামগ্রী বরাদ্দ দেওয়া হয়।

এর প্রতিটি ব্যাগে ১০ কেজি চাল, এক কেজি তেল, দুই কেজি চিড়া, এক কেজি চিনি, এক কেজি লবণ ও এক প্যাকেট নুডুলস রয়েছে। গত মঙ্গলবার স্থানীয় সংসদ সদস্য বেনজীর আহমদ ওই ইউনিয়নে কিছুসংখ্যক বন্যাদুর্গতদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করেন।

র‌্যাব-৪-এর ক্রাইম প্রিভেনশন কোম্পানি-২-এর কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জমির উদ্দীন আহমেদ বলেন, ‘সরকারি ত্রাণসামগ্রী আত্মসাতের উদ্দেশ্যে যাদবপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজুর বাড়িতে রাখা হয়েছে-এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার গভীর রাতে অভিযান পরিচালনা করি।

এ সময় তার বাড়ি থেকে ৩৫ ব্যাগ তথা ৫৬০ কেজি ত্রাণসামগ্রী উদ্ধার করি এবং তাকে আটক করি। তার বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইন, ১৯৭৪ এর ২৫ (১) ধারায় মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন

এ বিষয়ে যাদবপুর ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজু বলেন, ‘আমার নিজ ওয়ার্ডে ত্রাণ দেওয়ার জন্য ৩৫ বস্তা ত্রাণ ইউএনও স্যারকে জানিয়ে আমার বাড়িতে নিয়ে যাই। আমি রাজনৈতিকভাবে সরযন্ত্রের শিকার হয়েছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *