টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:


উজানের ঢল ও ভারী বর্ষণের ফলে টাঙ্গাইলে যমুনা, ধলেশ্বরী, ঝিনাইসহ বিভিন্ন নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। পানি বৃদ্ধির ফলে টাঙ্গাইল সদর, ভূঞাপুর, কালিহাতী, নাগরপুর, বাসাইলসহ বিভিন্ন এলাকার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। সেইসঙ্গে শুরু হয়েছে নদীভাঙন।

জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সিরাজুল ইসলাম জানান, যমুনাসহ জেলার বিভিন্ন নদীর পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। এতে বিভিন্ন স্থানে ভাঙন দেখা দিয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, আজ যমুনা নদীর পানি বিপৎসীমার ৩৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

অপরদিকে, পানি বেড়ে ধলেশ্বরীর পানি বিপৎসীমার ৪৫ সেন্টিমিটার এবং ঝিনাই নদীর পানি বিপৎসীমার ৬৪ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে করে অনেক নিচু এলাকায় পানিতে তলিয়ে গেছে আমন ধান। জেলার ভুঞাপুর উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের ভালকুটিয়া-চিতুলিয়াপাড়া এলাকায় যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় সেখানে ব্যাপক ভাঙন শুরু হয়েছে। এরই মধ্যে বেশ কিছু বসতভিটা ভেঙে নদীগর্ভে চলে গেছে। একটি মসজিদের অংশও ভেঙে গেছে। স্থানীয় লোকজন ভাঙন ঠেকানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

এ ছাড়া গত শনিবার রাত থেকে গতকাল রোববার পর্যন্ত জেলার কালিহাতী উপজেলার কালিপুর এলাকায় নদীভাঙনে অর্ধশতাধিক ঘরবাড়ি যমুনায় বিলীন গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *