অনলাইন ডেস্ক:


করোনাভাইরাস মোকাবিলায় চীনের কাছ থেকে চার-পাঁচ কোটি ডোজ টিকা কেনার পরিকল্পনা করছে সরকার। এমনটাই জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় নেপালকে করোনা সামগ্রী উপহার দেওয়ার অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আগামীকাল বুধবার চীন থেকে টিকা আসবে। দ্বিতীয় ডোজ যাতে নিশ্চিত করা যায়, সেভাবে হাতে রেখেই এ টিকা দেওয়া হবে। উপহার হিসেবে বাংলাদেশকে সিনোফার্মের ৫ লাখ টিকা দিচ্ছে চীন। সেই চালানটি এখন ঢাকার পথে। গতকাল সোমবার ঢাকার চীনা দূতাবাস এ তথ্য জানিয়েছে।’

ঢাকায় অবস্থিত চীনা দূতাবাস জানায়, বাংলাদেশকে যে ৫ লাখ টিকা উপহার দেওয়া হবে, সে টিকার প্যাকিং শেষ হয়েছে। এই টিকা কোম্পানি থেকে একটি কাভার্ডভ্যানযোগে বেইজিং এয়ারপোর্টে নেওয়া হয়েছে। এয়ারপোর্ট থেকে বিমানযোগে ঢাকায় আসবে। এ টিকা এমন ট্রাকে বহন করা হচ্ছে যাতে টিকাগুলো ঠান্ডা রাখা যায়।
জাহিদ মালেক বলেন, ‘এর আগে টিকা ক্রয়ের বিষয়ে বাংলাদেশকে ভ্যাকসিন ট্রায়ালের খরচ দিতে বলেছিল চীন, তাই তখন রাজি হয়নি বাংলাদেশ। তবে সে সময় বাংলাদেশ জানিয়ে রেখেছিল পরবর্তী সময়ে তাদের থেকে টিকা কেনা হবে। আর একন প্রয়োজন বুঝে তাদের কাছ থেকে টিকা ক্রয় করা হচ্ছে।’
এ সময় সমসাময়িক ঘটনাবলি নিয়ে কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের পররাষ্ট্র নীতি, আমরাই ঠিক করবো, চীনা রাষ্ট্রদূত কি বললো সেটাকে আমরা গুরুত্ব দিচ্ছি না।’
অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন ছাড়াও নেপা‌লের ঢাকায়‌ নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত বংশীধর মিশরা, পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন এবং স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব লোকমান মিয়াও উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *