ক্রীড়াঙ্গন প্রতিবেদক:


ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) অখেলোয়াড়চিত আচরণের জন্য শুক্রবার দিনভর আলোচনায় ছিলেন সাকিব আল হাসান। আম্পায়ারের সঙ্গে অসদাচরণের কারণে তার শাস্তি হবে, এটা প্রায় নিশ্চিত ছিল। ঘটনার একদিন পর সাকিবের জন্য কঠিন শাস্তি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। এই অলরাউন্ডারকে চার ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে গতকাল হাইভোল্টেজ ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আবাহনীর মুখোমুখি হয়েছিল মোহামেডান। এ ম্যাচে মোহামেডান অধিনায়ক সাকিব আল হাসান বেশ কয়েকটি আলোচিত ঘটনার জন্ম দেন।

জমজমাট ম্যাচটিতে আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত পছন্দ না হওয়ায় প্রথমে স্ট্যাম্পে লাথি মারেন সাকিব। পরে আম্পায়ার খেলা বন্ধের ঘোষণা দিলে রেগে গিয়ে তিনটি স্ট্যাম্পই মাটিতে আছড়ে ফেলেন তিনি।

সবশেষ আবাহনী ডাগআউটের সামনে খালেদ মাহমুদ সুজনের সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় করতেও দেখা যায় তাকে। এতসব কাণ্ডের পরই বোঝা গিয়েছিল বড় ধরণের শাস্তির মুখে পড়তে যাচ্ছেন সাকিব। অবশেষে সেই আশঙ্কাই সত্যি হয়েছে।

সাকিবের শাস্তির বিষয়টি দেশের এক গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন মোহামেডানের ক্রিকেট কমিটির প্রধান মাসুদুজ্জামান। তিনি জানান, গতকাল আবাহনীর বিপক্ষে ডিপিএলের ম্যাচে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে অসন্তোষ জানিয়ে দুই দফা স্টাম্প ভাঙায় সাকিবকে এই শাস্তি দেয়া হয়েছে।

ঘটনার পর ফেসবুকে ক্ষমা চেয়ে পোস্ট করেছিলেন সাকিব। তবে এ যাত্রায় ছাড় পেলেন না তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *