নিজস্ব প্রতিবেদক:

চাকরি জাতীয়করণ, বেতন বৈষম্য নিরসনসহ চার দফা দাবিতে মিরপুরে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর ঘিরে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করছেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরি কাম প্রহরীরা।

তারা এখন অধিদপ্তরের সামনে অবস্থান নিয়েছেন।

আজ সোমবার সকাল থেকেই দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে প্রায় ৫ হাজার দপ্তরি কাম প্রহরী সমাবেত হয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কর্মচারী কল্যাণ সমিতির ব্যানার হাতে নিয়ে অবস্থান করতে দেখা গেছে তাদের।

আন্দোলনকারীরা জানায়, সারা দেশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩৭ হাজার দপ্তরি কাম প্রহরী নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। সরকারি বিদ্যালয়ে চাকরি করেও তারা ন্যায্য বেতন-ভাতা পাচ্ছেন না। অমানবিক ও নজিরবিহীনভাবে তাদের দিনে দাপ্তরিক কাজ ও রাতে প্রহরার দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে।

তাদের দাবি, ২০১৩ সালে এই পদে নিয়োগের পর থেকেই তাদেরকে ২৪ ঘণ্টা দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। তাই দপ্তরি কাম প্রহরী পদটি রাজস্ব খাতে স্থানান্তর, কর্মঘণ্টা নির্ধারণ, বেতন বৈষম্য নিরসন, কাজের ধরন নির্ধারণ ও অবিলম্বে হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়নের দাবিতে তারা একত্রিত হয়ে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন।

এ ব্যাপারে প্রাথমিক বিদ্যালয় কর্মচারী কল্যাণ সমিতির যুগ্ম-আহ্বায়ক মামুন সরদার জানান, নিয়োগকৃত ৩৭ হাজার দপ্তরি কাম প্রহরীদের ওপর অমানবিক নির্যাতন হচ্ছে। তারা দিনে বিদ্যালয়ের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন কাজ, টয়লেট পরিষ্কার, বাগান পরিষ্কার ও দাপ্তরিক কাজ করেন। রাতে আবারও তাদের বিদ্যালয় পাহারার কাজ করতে হয়।

তিনি আরও জানান, তাদের চাকরি এখনো রাজস্ব খাতে নেওয়া হচ্ছে না। সঠিক কর্মঘণ্টা নির্ধারণ হচ্ছে না। এসব কারণে বাধ্য তারা অধিদপ্তর ঘেরাও করে দাবি বাস্তবায়নের চেষ্টা করছেন।

তাদের দাবিগুলো বাস্তবায়নের ঘোষণা না পাওয়া পর্যন্ত তারা এ আন্দোলন চালিয়ে যাবেন বলেও জানান প্রাথমিক বিদ্যালয় কর্মচারী কল্যাণ সমিতির যুগ্ম-আহ্বায়ক।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *