আজিজুল হক,ঝালকাঠি:

জেলার নলছিটি উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা মহিদুল হাসান হিরনকে এক গৃহবধূর ঘর থেকে আপত্তিকর অবস্থায় স্থানীয়রা আটক করে পুলিশে দিয়েছে।

ঘটনাটি ঘটে উপজেলার মগড় ইউনিয়নের কাঠিপাড়া গ্রামে।

কাঠিপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী নায়েব আলী জানান, ঘটনার রাতে আমরা গৃহবধূটির এক প্রতিবেশির কাছে জানতে পারি একজন অপরিচিত  ‍যুবক ওই নারীর ঘরে প্রায় ঘন্টা খানেক আগে চুপি চুপি প্রবেশ করতে তিনি দেখেছেন। এবং যুবকটি ঘরে ঢুকার পর সারা ঘরের সব আলো নিভিয়ে দেয়া হয়।

পরবর্তিতে আমরা ওয়ার্ডের মেম্বারের কাছে নালিশ করি। মেম্বার তাৎক্ষনিক উপস্থিত সবাইকে নিয়ে ওই বাড়িতে হানা দেয়। সবার উপস্থিতিতে ঘরের ভিতর থেকে ওই যুবককে অসামাজিক কাজে হাতেনাতে ধরে বেঁধে রেখে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ মধ্যরাতে এসে গৃহবধূসহ যুবককে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

অন্যদিকে পুলিশ ওই গৃহবধূর পরিবারের বরাত দিয়ে জানায়,অভিযুক্ত যুবক এর আগেও নারীটিকে পটিয়ে বাড়ি থেকে ভাগিয়ে নিয়ে ছিল। পরে রাজনৈতিক চাপে পড়ে গৃহবধূটিকে আবার ফিরিয়ে দেয়। এ ঘটনায় লোক লজ্জা,সন্তানদের দিকে তাকিয়ে মামলা করেনি নারীটির পরিবার।

গৃহবধূটির স্বামী ঢাকায় থাকার সুবাধে অভিযুক্ত যুবক পূনরায় নারীটির বাড়িতে যাতায়াত শুরু করে। তারি ধারাবাহিকতায় সে রাতে গৃহবধূটির ঘরে গিয়ে ছিল অভিযুক্ত যুবক।

গৃহবধূ ও যুবককে থানায় আনার পর গৃহবধূটি দাবি করে অভিযুক্ত হিরন তার রাজনৈতিক ক্ষমতার ভয় দেখিয়ে ও তার সন্তানদের প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে জোর পূর্বক তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করে।

পরে ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে হিরনের বিরুদ্ধে থানায় ধর্ষণের মামলা দায়ের করে।

মামলার এজাহারে গৃহবধূটি উল্লেখ করেন, তার স্বামী ঢাকায় চাকরি করেন। অভিযুক্ত হিরন বিভিন্ন সময় তাকে প্রেম ভালোবাসার প্রস্তাব দিয়ে উত্যক্ত করতো। গত শনিবার রাত ৮টার দিকে তার স্বামীর অনুপস্থিতিতে বাড়িতে প্রবেশ করে হিরন তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে তার আত্মচিৎকারে প্রতিবেশিরা ছুটে এসে হিরনকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *