আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ বিবেচনায় পাকিস্তানকে পেছনে ফেলে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান এখন ১৫তম স্থানে। শনিবার (২২ আগস্ট) পর্যন্ত বাংলাদেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ৯২ হাজার ৬২৫ জন। সরকারি হিসেবে মারা গেছে ৩ হাজার ৯০৭ জন।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশের চেয়ে পাকিস্তানে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা কম। ২৪ ঘণ্টায় বাংলাদেশে ২ হাজার ২৬৫ জনের সংক্রমণ ধরা পড়েছে আর মারা গেছে ৪৬ জন। অপরদিকে পাকিস্তানে ৫৮৬ জনের সংক্রমণের পাশাপাশি মৃত্যু হয়েছে ১২ জনের।

কিছুদিন ধরে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত রোগীর সংখ্যা কমতে থাকলেও এখনো প্রতিদিন দুই হাজারের বেশি মানুষের দেহে এই ভাইরাস শনাক্ত হচ্ছে। এছাড়া পরীক্ষার বাইরে থেকে যাচ্ছেন বহু মানুষ। তবে দক্ষিণ এশিয়ার আরেক দেশ ভারতে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনাভাইরাস সংক্রমণের সংখ্যা। দেশটিতে এরইমধ্যে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২৯ লাখ ছাড়িয়েছে, মৃত্যু হয়েছে ৫৬ হাজারের বেশি।

শনাক্ত রোগীর দিক থেকে শীর্ষ ২০ দেশের তালিকায় যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল ও ভারত ছাড়াও রয়েছে বাংলাদেশ, পাকিস্তান, রাশিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, পেরু, মেক্সিকো, কলম্বিয়া, স্পেন, চিলি, ইরান, আর্জেন্টিনা, যুক্তরাজ্য, সৌদি আরব, ইতালি, তুরস্ক, ফ্রান্স ও জার্মানি।

সংক্রমণের দিক থেকে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে এ পর্যন্ত ৩৫ লাখ ৩৬ হাজার ৪৮৮ জনের করোনাভাইরাস ধরা পড়েছে। মারা গেছেন ১ লাখ ১৩ হাজার ৪৫৪ জন। পাশের দেশ ভারতে প্রথম কোভিড-১৯ সংক্রমণ ধরা পড়ে ৩০ জানুয়ারি। সংক্রমণের দিক থেকে দেশটি এখন বিশ্বে তৃতীয়।

৯ লাখ ৫১ হাজার ৮৯৭ জনের করোনাভাইরাস সংক্রমণ শনাক্ত নিয়ে শীর্ষ তালিকার চতুর্থ স্থানে থাকা রাশিয়ায় প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়ে গত ৩১ জানুয়ারি। প্রথম সংক্রমণের ২০৩ দিন পর ২২ আগস্ট পর্যন্ত দেশটিতে এ পর্যন্ত মারা গেছে ১৬ হাজার ৩১০ জন। তালিকায় পঞ্চম স্থানে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকায় এখন পর্যন্ত ৬ লাখ ৩ হাজার ৩৩৮ জনের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। আর মৃত্যু হয়েছে ১২ হাজার ৮২৩ জনের।

উল্লেখ্য, বিশ্বজুড়ে মহামারি রূপ নেওয়া করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাংলাদেশে প্রথম ধরা পড়ে গত ৮ মার্চ। আর ঠিক তার ১০ দিন পরে এই রোগে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে ১৮ মার্চ। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৪৬ জন মারা গেছেন। তাদের মধ্যে পুরুষ ৩৬ জন ও নারী ১০ জন। হাসপাতালে মারা গেছেন ৪৫ জন ও বাড়িতে একজন। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল তিন হাজার ৯০৭ জনে। একই সময়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন আরও দুই হাজার ২৬৫ জন।

ফলে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল দুই লাখ ৯২ হাজার ৬২৫ জনে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *