অনলাইন ডেস্ক:
যুক্তরাজ্যভিক্তিক বেসরকারি মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল মতে, প্রকৃত মৃত্যুর সংখ্যা আরও অনেক বেশি। করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে এই সম্মুখযোদ্ধাদের দিকে বিভিন্ন দেশের সরকার যথাযথ নজর দিচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছে সংস্থাটি।

অ্যামনেস্টির তথ্য অনুযায়ী, করোনায় সর্বোচ্চ ৫৪৫ জন স্বাস্থ্যকর্মীর মৃত্যু হয়েছে রাশিয়ায়। যুক্তরাজ্যে মারা গেছে ৫৪০ জন। আর যুক্তরাষ্ট্রে ৫০৭ জন। ব্রাজিলে প্রাণ হারিয়েছে ৩৫১ জন স্বাস্থ্যকর্মী। মেক্সিকোসহ লাতিন আমেরিকার অন্যান্য দেশে মারা গেছে ২৪৮ জন।

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে একেবারে প্রথম সারির যোদ্ধা হলেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। সে কারণে তাদের আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেক বেশি। মৃতের সংখ্যাও উদ্বেগজনক। অ্যামনেস্টি বলছে, প্রথম সারির করোনাযোদ্ধা হিসেবে তাদের যে নিরাপত্তা ও কর্মপরিবেশ প্রয়োজন অধিকাংশ দেশেই সেটি নেই। তার উপর তাদের কর্মঘণ্টা বেশি, সেই তুলনায় বেতন-ভাতাও কম।

অ্যামনেস্টির অভিযোগ, ফেস মাস্ক, গাউন, গ্লাভস, সেফটি গগলসহ অন্যান্য জরুরি প্রয়োজনীয় মেডিকেল সামগ্রীর পর্যাপ্ত যোগান পাচ্ছে না তারা। বিশ্বের ৬৩টি দেশে স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য পর্যাপ্ত পিপিই নেই। স্বাস্থ্যকর্মীদের পাশাপাশি হাসপাতালের পরিচ্ছন্নতাকর্মীরাও করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছে।

সূত্র : আলজাজিরা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *