অনলাইন ডেস্ক:

মোংলায় সাত বছর বয়সী এক শিশু ধর্ষণের ঘটনায় চার্জ গঠনের ৭ কার্যদিবসের মধ্যে রায় ঘোষণা করে দ্রুততম বিচারের নজির গড়লো বাগেরহাটের জেলা ও দায়রা জজ আদালত।

সোমবার একমাত্র আসামি আব্দুল মান্নান সরকারকে দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের রায় ঘোষণা করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক মোহাম্মদ নূরে আলম।

সেইসঙ্গে তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

অভিযোগে বলা হয়েছিল, চলতি মাসের গোড়ার দিকে বন্দর শহর মোংলায় ৭ বছর বয়সী একটি শিশুকে বিস্কুটের প্রলোভন দিয়ে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ ও নির্যাতন করে তারই প্রতিবেশী ৫৩ বছর বয়সী আব্দুল মান্নান সরদার।

তেসরা অক্টোবর ঘটনার রাতেই শিশুটির মামা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করলে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এরপর ১১ অক্টোবর জুডিশিয়াল আদালত মামলাটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল ২-এ পাঠায়।

ওই দিন ট্রাইব্যুনাল মামলাটি আমলে নেয়। পরদিন অভিযোগ গঠন করে।

১৩ই অক্টোবর বাদীপক্ষের সাক্ষ্য নেওয়া হয় এবং ১৪ অক্টোবর সংশ্লিষ্ট সাক্ষী, চিকিৎসক, জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ সদস্য ও তদন্ত কর্মকর্তার সাক্ষ্য নেওয়া হয়।

রোববার পর্যন্ত মামলার বাদী-বিবাদী পক্ষের আইনজীবীদের যুক্তিতর্ক শুনানি শেষে সোমবার এই রায় ঘোষণা করেন জেলা ও দায়রা জজ মো. নূরে আলম।

মামলা দায়েরের মাত্র ছয় কার্যদিবসে বিচারকাজ শেষ করে, ৭ দিনের মাথায় রায় ঘোষণার নজির বাংলাদেশে এর আগে দেখা যায়নি।

নির্যাতনের শিকার শিশুটি অনাথ। সে তার মামা-মামীর কাছে থাকে। রায়ের পর শিশুটির মামীর সাথে কথা হয় বিবিসির, তিনি এই রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন। শিশুটি এখন সুস্থ রয়েছে বলেও জানান তার মামী।

সূত্র:- বিবিসি বাংলা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *