আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

ইরানের একমাত্র পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র বুশেহের জরুরি ভিত্তিতে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বন্ধের নেপথ্যের কোনো কারণ জানানো হয়নি। দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের বরাত দিয়ে এ কথা জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা।

রাষ্ট্রীয় ইলেকট্রিক কোম্পানি তাভানির’র কর্মকর্তা গোলাম আলি রাখশেনিমেহর জানিয়েছেন, তিন থেকে চার দিন বন্ধ থাকবে বুশেহর। এতে ইরানে কিছুটা বিদ্যুৎ ঘাটতি দেখা দিতে পারে।

২০১১ সালে চালু হওয়ার পর থেকে টানা এক দশকে কখনোই পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রটি জরুরি বন্ধ ঘোষণার প্রয়োজন পড়েনি। দক্ষিণ ইরানের বন্দরনগরী বুশেহেরে রাশিয়ার কারিগরি সহায়তায় এটি প্রতিষ্ঠা করা হয়।

রোববার রাষ্ট্রীয় কোম্পানিটির এক বিবৃতিতে বলা হয়, বিদ্যুৎকেন্দ্রে মেরামতের কাজ চলছে, আগামী শুক্রবার নাগাদ এই কাজ চলতে পারে। তবে বিবৃতিতে বিস্তারিত কিছুই বলা হয়নি।

গত মার্চে ইরানের পরমাণু কর্মকর্তা মাহমুদ জাফরি বলেছিলেন, যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার কারণে রাশিয়া থেকে যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম আনা যাচ্ছে না বিধায় পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রটি বন্ধ করা লাগতে পারে। ২০১৮ সালে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের ওপর কড়া অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা জারি করে।

ইরান নয়, রাশিয়ায় উৎপাদিত ইউরেনিয়াম দিয়ে বুশেহের পারমানবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রটি পরিচালিত হয়। জাতিসংঘের সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল অ্যাটমিক এনার্জি এজেন্সি (আইএইএ) তা পর্যবেক্ষণ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *