নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি:

জেলার আড়াইহাজারে তানজিনা আক্তার (১৪) নামে এক কিশোরী মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যার পর বাড়ির পাশের একটি গর্তে ফেলে রেখে যায় দুবৃত্ত।

ঘটনাটি ঘটে আজ ভোরে ফজরের নামাজের পর। নিহত তানজিনা আক্তার উপজেলার রামচন্দ্রদী এলাকার আফতাব উদ্দিনের মেয়ে। সে স্থানীয় একটি কওমি মাদরাসার ছাত্রী ছিল।

বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার গোপালদী পৌরসভার রামচন্দ্রদী এলাকা থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত কিশোরীর বাবা আফতাব উদ্দিন জানান, বৃহস্পতিবার আমরা সবাই ফজরের নামাজ পড়তে ঘুম থেকে উঠি। একই সময় তানজিনাও নামাজ পড়তে ওঠে। নামাজের পর মেয়েকে খুঁজে না পেয়ে আশপাশে খুঁজতে থাকি। সকালে বাড়ির পাশের একটি গর্তে তানজিনার মরদেহ দেখতে পাই। তানজিনাকে কে বা কারা হত্যা করে মরদেহটি গর্তে ফেলে রেখে গেছে।

গোপালদী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর আজহার উদ্দিন জানান, নিহত কিশোরীটিকে বৃহস্পতিবার ভোরে ঘাতক ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা করে তাদের বাড়ির পাশে একটি গর্তে মরদেহ ফেলে দিয়ে যায়। খবর পেয়ে দুপুরে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *