নিজস্ব প্রতিবেদক:


আসন্ন ঈদে চলাচল নিয়ন্ত্রণের পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

তিনি বলেছেন: এই যে দুই দফায় ১৪ দিনের লকডাউন এর সুফলটা আমরা ধরে রাখতে চাই। করোনার সংক্রমণ এখনও উর্ধগতি। তৃতীয় সপ্তাহে কী হবে সেটা নিয়ে আমরা ইতিমধ্যে পরিকল্পনা করছি চলতি মাসের ১২ তারিখ ১৩ তারিখের দিকে আমরা আবারও বসবো। তখন আমরা বিস্তারিত জানাতে পারবো।

তিনি আরও বলেন: করোনার সংক্রমণ রোধে আমরা অবশ্যই মানুষের চলাচল নিয়ন্ত্রণ করতে চাই। তা না হলে লকডাউনের সুফল ধরে রাখা যাবে না। আসন্ন কোরবানির ঈদে মানুষের চলাচল কী হবে হাট ব্যবস্থা কী হবে সে ব্যাপারে আমরা পরে জানাতে পারব।

এর আগে, করোনাভাইরাস সংক্রমণের বর্তমান পরিস্থিতিতে চলমান বিধিনিষেধ ১৪ জুলাই পর্যন্ত বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।সোমবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মাঠ প্রশাসন সমন্বয় অধিশাখার উপসচিব মো. রেজাউল ইসলাম সাক্ষরিত এই প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

সেখানে বলা হয়, ১৪ তারিখ মধ্যরাত পর্যন্ত এসব বিধিনিষেধের সময়সীমা বর্ধিত করা হলো। করোনা সংক্রমণ রোধে ১ জুলাই ভোর থেকে ৭ দিনের জন্য কঠোর লকডাউন ঘোষণার প্রজ্ঞাপন জারি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। এতে সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্বশাসিত ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে বলা হয়।

সেই কঠোর লকডাউনের মেয়াদ শেষ হবে আগামী ৭ জুলাই। তার আগেই নতুন করে প্রজ্ঞাপন জারি করা হলো।

২৮ জুন থেকে দেশে শুরু হয় সীমিত আকারের লকডাউন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *