আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনার ছয়টি ভিন্ন ভিন্ন জায়গায় সশস্ত্র বন্দুকধারীরা হামলা চালিয়ে অন্তত তিনজনকে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো বেশ কয়েকজন।

স্থানীয় সময় সোমবার রাত ৮টার দিকে এ হামলা চালানো হয়। এই হামলায় দুজন পথচারী ও একজন হামলাকারী নিহত হয়েছে। ১৫ জন আহত হয়েছে।

ভিয়েনায় ইহুদিদের প্রধান প্রার্থনাকেন্দ্রের কাছে গুলির ঘটনা ঘটলেও হামলাকারীদের টার্গেট সম্পর্কে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

দেশটির চ্যান্সেলর সেবাস্টিয়ান কুর্জ এ ঘটনাকে ‘ঘৃণ্য সন্ত্রাসী হামলা’ আখ্যায়িত করে জানিয়েছেন যে বন্দুকধারীদের একজন নিহত হয়েছে।

দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলছেন হামলাকারীদের একজনকে এখনো খুঁজছে পুলিশ।

শহরের মেয়র মিখাইল লুডভিগ জানাচ্ছেন, নিহতদের একজন ঘটনাস্থলেই মারা যায়। আহত একজন নারী মারা যান হাসপাতালে নেয়ার পর।

ধারনা করা হচ্ছে আরও অন্তত ১৪ জন হাসপাতালে আছে যার মধ্যে ছয়জনের অবস্থা মারাত্মক। আহতদের মধ্যে একজন পুলিশ কর্মকর্তাও আছে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের ভাষ্য অনুযায়ী সোমবার রাত ৮টার দিকে হামলাকারীরা রাইফেল নিয়ে আক্রমণ শুরু করে। তারা ছয়টি ভিন্ন ভিন্ন স্থানে হামলা চালায়। অল্প সময়ের মধ্যেই নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যরা সেখানে উপস্থিত হয় এবং একজন হামলাকারী তাদের গুলিতে নিহত হয়।

এখনও পুরো এলাকা জুড়ে পুলিশি অভিযান চলছে। বিস্তৃত এলাকা নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা ঘিরে রেখেছে। স্থানীয়দের ঘরের বাইরে না বেরুতে এবং গণপরিবহন ব্যবহার না করতে বলা হয়েছে। মঙ্গলবার ভিয়েনার স্কুলগুলো বন্ধ রাখার সিদ্ধান্তও হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *