অসহায়দের মুখে খাবার তুলে দেওয়ার চেষ্টা করছে সরকার

অনলাইন ডেস্ক:
করোনাভাইরাস মহামারি ও বন্যায় অসহায়দের মুখে সরকার খাবার তুলে দেওয়ার সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে। মানুষ যাতে উন্নত জীবন পায় সেটাই আমাদের লক্ষ্য, জাতির পিতার আদর্শ বাস্তবায়নে আমাদের সরকার কাজ করছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার (২ আগস্ট) আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন কৃষক লীগের শোকের মাসে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচির উদ্বোধন ও শোকের মাসের কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক সূচনা করেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী এসব কথা জানান।

সকালে ধানমন্ডি-৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু জাদুঘর ভবন চত্বরে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ কৃষক লীগ স্বেচ্ছায় প্লাজমা-রক্তদান কর্মসূচি, এতিম ও অনাথদের মাঝে ঈদ উপহার, মৌসুমি ফল ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করে। অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে।

এরপর মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বিশেষ অতিথি হিসেবে তার সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে সংযুক্ত হয়ে বক্তব্য রাখেন।

এছাড়া বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাসিম এবং স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা। কৃষক লীগের সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ্র’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট উম্মে কুলসুম স্মৃতি এমপি। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কৃষক লীগ নেতা বিশ্বনাথ সরকার বিটু।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনা মহামারি এবং বন্যার এই সময়ে সরকার অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। কর্মহীন, গরিব, এতিম, অসহায়দের মুখে খাবার তুলে দেওয়ার সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে আমাদের সরকার।

করোনার এ সময়ে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনগুলো মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে, ভালো কাজ করছে। এ সময় তিনি বন্যাকবলিত মানুষের পাশে দাঁড়াতে দল ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান।

শেখ হাসিনা বলেন, মানুষ যাতে উন্নত জীবন পায় সেটাই আমাদের লক্ষ্য, জাতির পিতার আদর্শ বাস্তবায়নে আমাদের সরকার কাজ করছে। এই মাসে আমি আমার বাবা-মা ও ভাইসহ সবাইকে হারিয়েছি। আমি তাদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *