সিএনএস ডেস্ক:

মামিজা রহমান রায়ার সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলে তার ইচ্ছা পূরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারি ও আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া।
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলার ইচ্ছা প্রকাশ করে ওই কিশোরী সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দিয়েছিলো ৷ রায়া নামের ওই কিশোরী একজন অটিস্টিক ৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই পোস্টে সাড়া দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কিশোরীটির সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী ওই কিশোরীর সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপ এ কথা বলেন। এ সময় কিশোরীটি লকডাউন শেষ হলে প্রধানমন্ত্রীর বাসায় আসার ইচ্ছাও ব্যক্ত করে। এদিকে কিশোরীর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কলে কথা বলার বিষয়টি ইতোমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

এই ঘটনাটি নিয়ে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপিকা অপু উকিল তার ফেসবুক আইডি থেকে পোষ্ট দিয়ে এ তথ্যটি তুলে ধরেন ৷ এ পোস্টে অপু উকিল ওই কিশোরীর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কলের দুটি স্থির চিত্রও প্রকাশ করেছেন।

তার ফেসবুক পোস্টে অপু উকিল লিখেছেন, নিজের জীবনকে জনগণের জন্য উৎসর্গ করে দিয়ে যিনি প্রতিটি মুহূর্ত এদেশের মানুষের স্বপ্ন সত্যি করতে চান। ইচ্ছা পূরণ করতে চান। তিনি জনকের কন্যা, মানবতার বাতিঘর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা।

অপু উকিল আরও লিখেন, একটি কিশোরী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলবার আগ্রহ প্রকাশ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিল। মানবিক প্রধানমন্ত্রী সে কথা জানতে পেরে পরম স্নেহে কিশোরীটির সঙ্গে ভিডিও কল করে শত ব্যস্ততার মধ্যেও কথা বলেছেন। তার মায়ার আঁচল বিছিয়ে আছে সমগ্র দেশ জুড়ে। শতকোটি সেলুট মাননীয় প্রধানমন্ত্রী।

পরে ফেসবুক পেজ থেকে বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাত ৯টার দিকে রায়া ও তার শিক্ষিকা হাসিনা হাফিজ একটি ভিডিও আপলোড করে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলার বিষয়টি জানান এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া তার ফেসবুক পেজে অটিস্টিক ওই কিশোরীর শিক্ষিকা হাসিনা হাফিজের ফেসবুক পেজ থেকে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলার পর যে অনুভূতি প্রকাশ করেছে তা শেয়ার দেন। এতে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলার পর ভিডিও আপলোড করে রায়া নামের ওই কিশোরী ও তার শিক্ষিকা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

রায়ার শিক্ষিকা হাসিনা হাফিজ তার আপলোড করা ওই ভিডিওবার্তায় বার্তায় বলেন, আমরা গতকাল একটি ভিডিও আপলোড করেছিলাম এখানে রায়া বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অনুরোধ করেছিলো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেন তার সঙ্গে কথা বলেন। পরম করুনাময় অসীম আল্লাহর দয়ায় আমরা আজকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা বলেছি। আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একটু আগে ফোন করেছিলেন। তিনি অনেকক্ষণ কথা বলেছেন। রায়া বলেছে লকডাউনের সিচুয়েশন আরেকটি নরমাল হয়ে গেলে রায়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তার বাসায় গিয়ে দেখা করবে।

এসময় রায়ার অনুভূতি জানতে চাইলে তার মা রায়ার অনুভূতি জানান, আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বলেছি আই লাভ ইউ। আমি শেখ হাসিনার সাথে অনেক কথা বলেছি। আমি তাকে বলেছি লকডাউন শেষ হলে তোমার বাসায় গিয়ে গল্প করবো, দেখা করব। আই লাভ ইউ বলবো। রায়া এ সময় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলার সুযোগ পাওয়ায় সবাইকে ধন্যবাদ জানায় ও সকলের কাছে দোয়া চায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *